1. admin@admin.com : admin :
  2. harundesk@gmail.com : unlimitednews24 : Md Jibon
  3. unlimitednews24@gmail.com : Md Jibon : Md Jibon
  4. mdnayeem7726@gmail.com : Md Nayeem : Md Nayeem
বড় ভাইয়ের অসমাপ্ত কাজগুলো একজন শ্রমিক হয়ে সমাপ্ত করতে চাইঃ নজরুল
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:২৪ অপরাহ্ন

বড় ভাইয়ের অসমাপ্ত কাজগুলো একজন শ্রমিক হয়ে সমাপ্ত করতে চাইঃ নজরুল

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১

২০১৭ সালে দক্ষিণগাঁও ইউনিয়নকে ৭৩নং ও ৭৪নং ওয়ার্ড করণের মধ্য দিয়ে সিটি করপোরেশন দক্ষিণে অন্তর্ভূক্ত করা হয়। ওয়ার্ডের প্রথম কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হন আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম। মাত্র ১০ মাস দায়িত্ব পালন করার সময় পায় তিনি। এরপর আবার সিটি করপোরেশন নির্বাচন দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে ব্যাপকভাবে জয়লাভ করেন শফিকুল ইসলাম। করোনা ও মানবিকতায় নিজেকে একজন সেবক হিসেবে মেলে দিয়ে জনগণের সুখে-দুঃখে পাশে থাকার জন্য কাজ করে গেছেন। যে কোনো বিচার-সামাজিক শালিস সব ক্ষেত্রে ন্যায়কে গুরুত্ব দিয়ে সুষ্ঠ ভাবে দায়িত্ব পালন করার সুনাম রয়েছে।

ওয়ার্ডে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। বিকেল হলেই হাজার হাজার মানুষ ছুটে আসছে মানিকদা ঘুরতে। আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কর্মী হয়ে তার উন্নয়নের রূপরেখা বাস্তবায়নে এলাকার অলি-গলিতে সৌন্দয্যের আলপোনায় একেঁছেন প্রয়াত কাউন্সিলর আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম। এখনো বেশ কিছু কাজ অসমাপ্ত, স্থানীয় মানুষের আবেক অনুভূতির কেন্দ্রবিন্দুতে জরিয়ে আছেন শফিকুল ইসলাম। সম্প্রতি এ ওয়ার্ডে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ৭ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার ভোট গ্রহণ। এদিকে, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ১৩ সেপ্টেম্বর সোমবার, দাখিলকৃত মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের তারিখ ১৪ সেপ্টেম্বর এবং প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর রোববার।
এ ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের জনপ্রিয় নেতৃত্ব ছিলেন আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম, অন্যদিকে দক্ষিণগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি এইচএস সোরাওয়ার্দীও মারা যান তার কিছু দিন পর। সার্বিকভাবে বিএনপির শক্তিশালী তেমন কোনো প্রার্থী না থাকায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাঝে ওপেন নির্বাচনের গুঞ্জন রয়েছে। আওয়ামী লীগের (দক্ষিণগাঁও ইউনিয়ন) সভাপতির জানাজায় অংশ নিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র বলেছিলেন, শফিক সাহেব আমার কাছে কখনো নিজের জন্য কিছু চায়নি। তিনি যখনি আমার সাথে দেখা করেছিলেন এলাকার উন্নয়নের কাজ নিয়েই গিয়েছেন। তিনি মানুষের জন্য নিবেদিত ছিলেন। স্থানীয় সাংসদ সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছিলেন, তার এই জানাযায় আগত এতলোকের কারণই বলে দেয় তিনি কতটা জনপ্রিয় ছিলেন।

সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়, ওয়ার্ডের মানুষের ভালবাসা এখন প্রয়াত কাউন্সিলর শফিকুল ইসলামে ছোট ভাই মোঃ নজরুল ইসলামের দিকে। বড় ভাইয়ের অসমাপ্ত কাজগুলোকে সমাপ্ত করার জন্য মানুষের ভালবাসায় প্রার্থী হিসেবে বিচরন করছেন মোঃ নজরুল ইসলাম। চায়ের দোকান, মুদি দোকান সব জায়গায় এখন নির্বাচনের আলোচনা। এ বিষয়ে ৭৩নং যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ স্বপন মিয়ার বলেন, খুব অল্প সময়ে আমাদের ওয়ার্ডকে সুন্দর ও নান্দনিকভাবে রূপ দেয়ার চেষ্টা করেছিলেন আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম। এলাকার উন্নয়নে তিনি দিনরাত কাজ করতেন। তিনি আজ আমাদের মাঝে নেই। আমাদের সবাইকেই এ নিয়মে চলে যেতে হবে। তবে শফিক সাহেবের অনেক স্বপ্ন যা আমাদের সাথে আলোচনা করতেন, তার পরিকল্পনা ছিল মডেল ও সুন্দরের ছোয়ায় একটি ওয়ার্ড গড়ার। তার মৃত্যুতে আমাদের অনেক ক্ষতি হয়েছে, তবে নির্বাচনের প্রশ্নে বলতে হয় মোঃ নজরুল ইসলামের বিকল্প কেউ নেই।

তিনি যেমন শিক্ষিত, তেমনি মেধাবী। শিক্ষা ও মেধার সম্বন্বয়ে তিনি আমাদের প্রিয় মানুষ আলহাজ্ব শফিকুল ইসলামে অসম্পূর্ণ কাজ-সম্পূর্ণ করতে পারবেন।
এ বিষয়ে দক্ষিণগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক ও প্রয়াত কাউন্সিলর আলহাজ্ব মোঃ শফিকুল ইসলামের ছোট ভাই মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, একটি সময় ছিল এখানে কেউ আওয়ামী লীগের হাল ধরার মত ছিল না, আমার শ্রদ্ধেয় বড় ভাই আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম ও নেতাকর্মীদের সুখে-দুঃখে পাশে থেকে সংগঠনকে সুসংগঠিত করেছেন। তিনি সকলের ভালোবাসায় দুইবার কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। খুব অল্প সময়ে তিনি এলাকার উন্নয়নে, মানুষের আপদে-বিপদে যেভাবে পাশে ছিলেন, আজ তার শূন্যতা সবাই অনুভব করছেন। এলাকাবাসীর দাবী তাদের জন্য আমি যেন আমার বড় ভাইয়ের অসমাপ্ত কাজগুলো করি। আমি দলের কর্মী হয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যে কোনো নির্দেশ পালন করতে প্রস্তুত। মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আমার ভাই জিরোট্রলারেন্স ছিলেন, আমিও একই পথে হাটবো। দৃষ্টি নন্দন ও নান্দনিক একটি ওয়ার্ড গড়তে তরুণদের নিয়ে কাজ করবো। বড় ভাইয়ের সাথে তার কাজের ছায়াসঙ্গি হিসেবে সব সময় ছিলাম। আমি আশাবাদি দল আমাকে মনোনয়ন দিয়ে আমার ভাইয়ের অসমাপ্ত কাজগুলোকে সমাপ্ত করার সুযোগ দিবেন। আমি আমার ওয়ার্ডবাসীর শ্রমিক হয়ে কাজ করতে চাই। বড় ভাইয়ের স্বপ্ন ছিল একটি পরিকল্পিত ওয়ার্ড গড়ার। স্কুল, কলেজ, হাসপাতাল ও কিশোরদের জন্য খেলার মাঠের ব্যবস্থা করা। আমি ইতিমধ্যে ভাইয়ের সাথে দেখে তার বেশ কিছু কাজের দায়িত্ব পালন করেছি।

আল্লাহ্ চাইলে আমি দলের মনোনয়ন পেতে নির্বাচিত হলে দ্রুত মডেল ওয়ার্ড গড়তে পারবো। এলাকার মুরব্বি, ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ সকলেই আমাকে ভালোবাসেন। তাদের সঙ্গে নিয়েই আমি প্রার্থী হয়েছি। আশা করি দল আমাকে মূল্যায়ন করবে। উল্লেখ্য, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি ) ৭৩নং ওয়ার্ড, একটি প্রশাসনিক ওয়ার্ড, যা অঞ্চল-৭ এর অন্তর্গত। এটি পূর্বে দক্ষিণগাও ইউনিয়নের অংশ ছিল, ২০১৭ সালে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরশনের অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ওয়ার্ড নং ৭৩ ঢাকা মহানগরের সবুজবাগ থানায় অবস্থিত। ওয়ার্ডটি বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের ঢাকা-৯ আসনের অন্তর্গত। এ ওয়ার্ডের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত কাউন্সিলর হলেন মো. জাহাঙ্গীর হোসেন।
ওয়ার্ড নং ৭৩, ঢাকা মহানগরের নন্দীপাড়া বাজার, দক্ষিণগাঁও নয়াবাগ, কুসুমবাগ, দক্ষিণগাঁও পশ্চিমপাড়া, দক্ষিণগাঁও, দক্ষিণগাঁও দাসপাড়া, দক্ষিণগাঁও ৬ নম্বর রোড, দক্ষিণগাঁও শাহীবাগ, বেগুনবাড়ী, মানিকদিয়া, মানিকদিয়া, উত্তর মানিকদিয়া চেয়ারম্যানবাড়ী ও ভাইগদিয়া এলাকা নিয়ে গঠিত।

Sharing is caring!

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Error Problem Solved and footer edited { Trust Soft BD }
এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন

সর্বশেষ সংবাদ

© All rights reserved © 2017-2021 www.unlimitednews24.com
Web Design By Best Web BD