ডেস্ক নিউজঃ মিয়ানমারের কারাগারে সাজাভোগ শেষে ২৪ জন বাংলাদেশী নাগরিককে বিজিবির কাছে ফেরত দিয়েছে মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপি। আজ মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে মিয়ানমারের রাখাইন স্টেটের মংডুতে বিজিবি ও বিজিপির মধ্যে অনুষ্ঠিত পতাকা বৈঠক শেষে বাংলাদেশী নাগরিকদের ফেরত দেয়।

বিজিপি মংডু ৪ নং সেক্টর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে বিজিবির ৯ সদস্য বিশিষ্ট দলের নেতৃত্ব দেন টেকনাফ ২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সাল হাসান খান। অপরদিকে মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনীর পক্ষে ৭ সদস্য বিশিষ্ট দলের নেতৃত্ব দেন বিজিপি মংডু সেক্টরের অধিনায়ক লে. কর্নেল জ লি অং। পতাকা বৈঠক শেষে মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবির কাছে বাংলাদেশী নাগরিকদের হস্তান্তর করে।

পরে বাংলাদেশী নাগরিকদের নিয়ে টেকনাফ জেটি ঘাটে ফিরে এসে সাংবাদিকদের এক ব্রিফিংয়ে বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সাল হাসান খান জানান, নাফ নদীতে মাছ শিকার করতে গিয়ে জলসীমা অতিক্রম করায় এবং সাগর পথে মালয়েশিয়া যাওয়ার সময় এসব বাংলাদেশী নাগরিক মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনী ও মিয়ানমার নৌবাহিনীর হাতে আটক হয়। পরে তাদের মিয়ানমার আদালতে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেয়া হয়। আদালতের দেয়া সাজা শেষ হলে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে এসব বাংলাদেশী নাগরিকদের ফেরত দেয় মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ।

ফেরত আসা এসব বাংলাদেশী নাগরিকদের মধ্যে টেকনাফের ১২ জন, রাঙ্গামাটি জেলার ৮ জন, বান্দরবান জেলার ৩ জন এবং চট্টগ্রামের বাশখালী উপজেলার ৩ জন রয়েছেন।

ব্রিফিংয়ে লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সাল হাসান খান জানান, ফেরত আনা এসব নাগরিকদের স্বাস্থ্য বিধি মেনে প্রশাসনের মাধ্যমে স্ব স্ব ঠিকানায় পাঠিয়ে দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

Sharing is caring!