বন্দুকযুদ্ধে ১০ মামলার আসামি নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে গোলাগুলিতে রোহিঙ্গা শীর্ষ ডাকাত সর্দার জকিসহ ৩ জন নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের শালবন ও জাদিমুরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশের পাহাড়ে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ২টি পিস্তল, ২টি লম্বা বন্দুক, ৫টি ওয়ান শুটার, ২৫ রাউন্ডগুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

 

র‌্যাবের দাবি নিহত জকির ডাকাতের বিরুদ্ধে হত্যা, ধর্ষণ, অপহরণ এবং মাদকসহ ২০টির বেশি মামলা রয়েছে। এঘটনায় র‌্যাবের এক সদস্য হাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছে।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ জানিয়েছেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল টেকনাফের শালবন ২৬নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশ্ববর্তী পাহাড়ে ডাকাত জকি বাহিনীর অবস্থানের খবরে অভিযান চালানো হয়। এসময় রোহিঙ্গা ডাকাত গ্রুপের সঙ্গে র‌্যাবের বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। ঘন্টাব্যাপী গোলাগুলির এক পর্যায়ে জকি বাহিনীর প্রধান জকিসহ ৩ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

টেকনাফ থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান জানান, র‌্যাবের সঙ্গে রোহিঙ্গা ডাকাতদলের গোলাগুলির ঘটনায় বাহিনী প্রধান জকি (৩৫), মনির (৩০) নামের দুইজনকে চিহ্নিত করতে পেরেছেন। অন্যজনের পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি। র‌্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থল এখনো ঘিরে রেখেছেন। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

Sharing is caring!