ডেস্ক নিউজঃ পাকিস্তানের নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী মালালা ইউসুফজাইকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। তালেবানের পক্ষ থেকে এ হুমকি এসেছে। হুমকি দাতার নাম এহসানুল্লাহ এহসান। যিনি নয় বছর আগে মালালাকে হত্যা করার চেষ্টা করেছিলেন। ওই সময় এ কারণে তখন তাকে গ্রেপ্তারও করা হয়।

এবার অভিযুক্ত ওই তালেবান নতুন করে টুইটারে লিখেছে, ‘প্রথমবার রেহাই পেয়েছ। কিন্তু এরপর আর রেহাই পাবে না। কারণ এবার আর ভুল করব না। তোমাকে নিশ্চয় হত্যা করা হবে।’

এ পোস্ট দেওয়ার পর পরই টুইটার কর্তৃপক্ষ অ্যাকাউন্টটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দিয়েছে। খবর দ্য হিন্দুর।

এ হুমকির পর মালালা ইউসুফজাই তার টুইটারে তাকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে আটক এহসানুল্লাহ এহসান কী করে সরকারের হেফাজত থেকে ছাড়া পেয়েছে তা জানতে চেয়েছেন পাকিস্তানের সেনাবাহিনী ও প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের কাছে।

উল্লেখ্য, এহসানকে ২০১৭ সালে গ্রেপ্তার করা হয়। কিন্তু ২০২০ সালে জানুয়ারি মাসে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থার তথাকথিত সেফ হাউস থেকে ছাড়া পেয়ে যান তিনি। তার গ্রেপ্তার ও মুক্তি দুটোই রহস্যাবৃত ও বিতর্কিতই থেকে যায়। ছাড়া পাওয়ার পর থেকে নিজের উর্দু ভাষার টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে সাংবাদিকদের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রাখেন এবং বিভিন্ন সময়ে সাক্ষাৎকারও দেন এহসান।

তার একাধিক অ্যাকাউন্ট ছিল। তবে টুইটার কর্তৃপক্ষ এখন সবগুলোকে বাতিল করে দিয়েছে।

এদিকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর একজন উপদেষ্টা রাউফ হাসান বলেছেন, সরকার ওই হুমকি সম্পর্কে তদন্ত করছে। তারা টুইটার কর্তৃপক্ষকে তার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়ার অনুরোধ করেছে। পাকিস্তানি তালেবানের দীর্ঘদিনের সদস্য এহসান মালালাকে দেশে ফেরার আহ্বান জানিয়ে বলেছে, তারা মালালা ও তার বাবার সঙ্গে একটি ফয়সালায় যেতে চায়।

মালালা ইউসুফজাই ২০১২ সালে ১৫ বছর বয়সে স্কুলে যাওয়ার পথে পাকিস্তানে তার নিজের এলাকা সোয়াত ভ্যালিতে তালেবানের হাতে গুলিবিদ্ধ হয়। মুমুর্ষূ অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশে পাঠানো হয়। তখন থেকেই বিদেশে অবস্থান করছেন মালালা।

Sharing is caring!