নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে একদল পাগলা কুকুরের কামড়ে জখম হয়েছেন শিশুসহ ১৩ জন। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন হীরাঝিল আবাসিক এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এরপর থেকে আতঙ্কে রয়েছে পুরো এলাকাবাসী।

জানা যায়, সিদ্ধিরগঞ্জে সিটি করপোরেশনের ১ নম্বর ওয়ার্ডের হীরাঝিল আবাসিক এলাকায় এক দল কুকুর হঠাৎ করে মানুষের উপর চড়াও হয়ে আক্রমণ করে। এরপরই এলোপাতাড়ি সবাইকে কামড়ানো শুরু করে। পরে এলাকাবাসী একত্রিত হয়ে কুকুরগুলোকে ধাওয়া দিয়ে ছত্রভংগ করে আহতদের উদ্ধার করেন।

এ ঘটনায় আহতদের কেউ কেউ রাজধানীর মহাখালীতে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আবার স্থানীয় ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে প্রতিষেধক ইনজেকশন নিয়েছেন কেউ।

ভুক্তভোগী আবদুল লতিফের ছেলে বাবলু জানান, আমার বাবা বাইরে হাঁটতে বের হয়েছিলেন। হঠাৎ কুকুর এসে তার পায়ে কামড় দেয়। ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে তাকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে।

ভুক্তভোগী আল-আমীন বলেন, কাজ সেরে রাতে বাসায় ফিরছিলাম। তখনই পেছন থেকে একটি কুকুর এসে আমার পায়ে কামড় দেয়। আমি ফার্মেসী থেকে ইনজেকশন নিয়েছি।

এ বিষয়ে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক ফরহাদ হোসাইন জানান, কুকুরের কামড়ে আহতদের রেবিক্স ডিসি ইনজেকশন দিতে হয়। এক মাসে মোট ৫ ডোজ ইনজেকশন দিতে হবে বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো: আবুল আমীন বলেন, বিষয়টি লোকমুখে শুনেছি। খোঁজ খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

Sharing is caring!