ডেস্ক নিউজঃ মাঠের আম্পায়ারিংয়ে ভুল হয়, তাই তো থার্ড আম্পায়ারের দ্বারস্থ হন খেলোয়াড়ার-আম্পায়াররা। কিন্তু সেই থার্ড আম্পায়ারও যদি ভুল করেন তাহলে আর কিছুই করার থাকে না। এমনই একটি ঘটনা গতকাল ভারত-ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনে ঘটল। পরে অবশ্যই ওই থার্ড আম্পায়ার নিজের ভুল বুঝতে পেরে ক্ষতিপূরণ হিসেবে রিভিউ ফেরত দিয়েছেন।

ভারতের মাটিতে দ্বিতীয় টেস্টে থার্ড আম্পায়ার অনিল চৌধুরী গোটা রিপ্লে না দেখেই আজিংকা রাহানেকে ‘নট আউট’ ঘোষণা করলেন। ওই রিপ্লে সম্পূর্ণটা দেখলে সিদ্ধান্ত হত তার ঠিক বিপরীত।

জ্যাক লিচের বল রাহানের প্যাডে লেগে ফরোয়ার্ড শর্ট লেগে দাঁড়ানো অলি পোপের হাতে গেলে জোরালো আবেদন করেন ইংলিশ ফিল্ডাররা। মাঠের আম্পায়ার নট আউট দিলে রিভিউ নেন জো রুট। রিপ্লেতে দেখা যায়, বল রাহানের ব্যাটে লাগেনি, শুধু প্যাডে লেগে ফিল্ডারের হাতে গেছে। তাই থার্ড আম্পায়ারও নট আউট ঘোষণা করেন।

কিন্তু রুটরা জানান, বল প্যাডে লাগার পর ফের রাহানের গ্লাভসে লেগেছে। মাঠের আম্পায়ার সে কথা থার্ড আম্পায়ারকে জানান। কিন্তু অনিল চৌধুরী সেটা না দেখে এলবিডব্লিউর বিচার করেন। তাতে এলবিডব্লিউ ছিলেন না রাহানে। তবে অন্য রিপ্লেতে স্পষ্ট বোঝা যায়, প্যাডে লেগে বল তার গ্লাভস ছুঁয়ে পোপের হাতে জমা পড়েছে। কিন্তু সেই ক্যামেরা অ্যাঙ্গেল না দেখেই সিদ্ধান্ত নিয়ে নেন অনিল।

এ নিয়ে স্পষ্টতই ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা যায় রুট-স্টোকসদের। যদিও পরের ওভারেই মঈন আলির বলে বোল্ড হয়ে ফিরে যান রাহানে। কিন্তু ইংলিশ ধারাভাষ্যকার মার্ক বুচার বলতে থাকেন, আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তে মহামূল্যবান একটা রিভিউ হারাল তার দেশ।

এই ঘটনায় অনেকেই সরব হয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তৃতীয় আম্পায়ার অনিল চৌধুরীর সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন ইংল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটাররা।

এদিকে, অনিল চৌধুরী নিজের ভুল বুঝতে পারেন পরে। তাই ইংল্যান্ডকে সেই রিভিউ ফেরত দেওয়া হয়। এদিন, রোহিত শর্মার একটি স্টাম্পিংয়েও বিতর্কিত সিদ্ধান্ত নেন এই থার্ড আম্পায়ার।

Sharing is caring!