কক্সবাজারে দিনব্যাপী অভিযানে আরও ৩ লাখ ৭৫ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ১৭ লাখ ৭৫ হাজার পিস ইয়াবা ও নগদ ১ কোটি ৭১ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৪ জনকে। পুলিশ বলছে, গ্রেপ্তারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে দফায় দফায় অভিযান চলছে।

পুলিশ জানিয়েছেন, মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২টার দিকে প্রথম দফায় কক্সবাজার সদরের চৌফলদণ্ডীর নদী থেকে ১৪ লাখ ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করা হয় জহিরুল ইসলাম ফারুককে। গ্রেপ্তারকৃত ফারুক প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তার স্বীকারোক্তি মতে তার বাড়ির মাটির গর্ত থেকে দুটি বস্তাভর্তি ১ কোটি ৭০ লাখ ৬৫ হাজার ৫০০ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। পরবর্তিতে রাত ৯টার দিকে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তারকৃত ফারুকের চাচা শ্বশুর ছৈয়দ আহমদের বাসা থেকে আরও ৩ লাখ ৭৫ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান জানান, ১৪ লাখ ইয়াবাসহ গ্রেপ্তারকৃত জহিরুল ইসলাম ফারুককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তার বাড়িতে ইয়াবা বিক্রির বিপুল পরিমাণ টাকা রাখার কথা স্বীকার করেন তিনি। তার দেয়া তথ্য মতে, অভিযান চালিয়ে তার বাড়ি থেকে দুটি বস্তাভর্তি টাকা উদ্ধার করা হয়। গণনা করে দুই বস্তায় এক কোটি ৭০ লাখ ৬৫ হাজার ৫০০ টাকা পাওয়া গেছে। ইয়াবা এবং টাকা উদ্ধারের ঘটনায় আটক এ চক্রের সদস্যদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পুলিশ সুপার মো: হাসানুজ্জামান আরও জানান, ইয়াবায় জড়িত অনেক গডফাদারের নাম পাওয়া গেছে। তালিকার বাইরেও অনেক নতুন ব্যবসায়ীদের নাম পাওয়া যাচ্ছে। এর আগে দুপুরে কক্সবাজার সদরের চৌফলদন্ডী ব্রীজ এলাকা থেকে ১৪ লাখ ইয়াবাসহ আটক করা হয় ইয়াবা ডন জহিরুল ইসলাম ফারুক ও নুরুল ইসলাম বাবুকে। পরে এ ঘটনায় জড়িত আরও ২ জন মো: আলী ও শেখ আবদুল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে, একদিনে এতো বিপুল পরিমাণ ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় তোলপাড় চলছে জেলাজুড়ে।

Sharing is caring!