কুড়িগ্রামের রৌমারীতে নিখোঁজের ৫ ঘন্টা পর শিশু শাফিকের (৩) বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রৌমারী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোন্তাছের বিল্লাহ জানান, শিশুটি নিখোঁজের প্রায় পাঁচ ঘন্টা পর তাদের বাড়ির পাশের একটি পরিত্যাক্ত বাড়ি থেকে বস্তাবন্দি অবস্থায় শিশুটির মরদেহ খুঁজে পায় তার স্বজন ও এলাকাবাসী। পরে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

নিহত শিশু রৌমারী উপজেলার দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়নের ঝগড়ারচর গ্রামের জাহেদুল ইসলামের ছেলে। শ্বাসরোধ করে হত্যার পর বস্তাবন্দি করে মরদেহ ওই পরিত্যাক্ত বাড়িতে ফেলে রেখে গেছে। ঘটনার তদন্ত চলছে। মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রামের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শিশুটির বাবা স্কুল শিক্ষক জাহেদুল জানায়, শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) বিকালে আকস্মিক শাফিকে খুঁজে পাওয়া যচ্ছিল না। বাড়ির সকলে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজির পর রাত সাড়ে ১০ টার দিকে তাদের পার্শ্ববর্তী একটি পরিত্যাক্ত বাড়িতে বস্তাবন্দি অবস্থায় তার মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়া হয়।

Sharing is caring!