ডেস্ক নিউজঃ দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়েই গোলের দেখা পেলেন লিওনেল মেসি। তাতে পিছিয়ে পড়া বার্সাকে সমতায় ফেরান আর্জেন্টাইন তারকা। আর স্প্যানিশ কোপা ডেল রের শেষ ষোলোর ম্যাচে রায়ো ভায়োকানোর বিপক্ষে ইয়ংয়ের গোলে জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়ে রোনাল্ড কোম্যানের শিষ্যরা। এই জয়ে কোয়ার্টার-ফাইনালে গেলো বার্সা।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) রাতে প্রতিপক্ষের মাঠে আচমকাই গোল খেয়ে বসে বার্সা। দলকে সমতায় ফেরান অধিনায়ক লিওনেল মেসি। পরে জয়সূচক গোলটি করেন ফ্রেংকি ডি ইয়ং। ২-১ গোলের ব্যবধানে জয় নিয়ে শেষ আটে উঠলো বার্সা।

ম্যাচের প্রায় ৭০ শতাংশ সময় বল দখলে রাখার পাশাপাশি আক্রমণেও আধিপত্য দেখায় বার্সেলোনা। তবে প্রথমার্ধে তারা কোন গোলের দেখা পায়নি। যদিও প্রভাব বিস্তার করে খেলেছে। এমনকি দুই দুইবার বার কাঁপিয়েছে। তাতে গোলশূন্যভাবেই শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা।

বিরতির পর ফ্রি কিক থেকে মেসির বাঁকানো শট জালে ঢুকতে গিয়ে পোস্টে লেগে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। এর দুই মিনিট পরেই গোল হজম করে পিছিয়ে পড়ে বার্সা। এ সময় ভায়োকানোর ফ্রান গার্সিয়া গোল করে এগিয়ে নন দলকে। ডান দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে দুরূহ কোণ থেকে শট নেন আলভারো গার্সিয়া। নেতো ঝাঁপিয়ে বলে হাত ছোঁয়ালেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি, আলগা বল গোলমুখ থেকে জালে ঠেলে দেন ফ্রান গার্সিয়া।

তবে বেশিক্ষণ রায়োকে এগিয়ে থাকতে দেয়নি কাতালানরা। ৬৯ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে আঁতোয়ান গ্রিজমানের ক্রস থেকে গোল করে সমতা ফেরান মেসি। এরপর গোছালো আক্রমণে ৮০তম মিনিটে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। মেসির ডি-বক্সে উঁচু করে বাড়ানো বল ধরে ছয় গজ বক্সের মুখে বাড়ান জর্দি আলবা। সময়মতো সেখানে ছুটে যাওয়া ডি ইয়ং অনায়াসে ডান পায়ের টোকায় গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন।

কোয়ার্টার ফাইনালের টিকিট পেতে আর কোনো গোলের প্রয়োজন হয়নি রোনাল্ড কোম্যানের শিষ্যদের। শুক্রবার কোয়ার্টার ফাইনালে সেভিয়ার মুখোমুখি হবে ৩০ বারের কোপা ডেল রে চ্যাম্পিয়ন বার্সা।

Sharing is caring!