এইচ.এম. আবেদুজ্জামান জিহাদঃ রাজধানীর ঢাকা মহানগর দক্ষিণের অন্তর্ভুক্ত যাত্রাবাড়ী থানার আওতাধীন ৬২ নং ওয়ার্ড এ গরীব,দুঃস্থ ও অস্বচ্ছলদের মাঝে শীতবস্ত্র ও মাস্ক বিতরণ কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ,ঢাকা মহানগর দক্ষিণ। “মানবতার জয়গান ধ্বনিত হোক সবদিকে” এই স্লোগানে দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ এর বিপরীত পাশে এ কর্মসূচী এর আয়োজন করা হয়।
এ কর্মসূচীতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা-০৫ আসনের সংসদ সদস্য ও যাত্রাবাড়ী থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি কাজী মনিরুল ইসলাম মনু এবং বিশিষ্ট রাজনৈতিক বিশ্লেষক সুভাষ সিংহ রায়। কর্মসূচী এর সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইনুদ্দিন রানা এবং সঞ্চালনা করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এইচ এম রেজাউল করিম রেজা। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ এর প্রেসিডিয়ামের সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান বাদশা, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুর রহমান সোহাগ,প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জয়দেব নন্দী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের কার্যনির্বাহী সংসদ এর নেতৃবৃন্দ সহ মহানগর দক্ষিণ এর অন্তর্ভুক্ত বিভিন্ন ওয়ার্ড এর নেতৃবৃন্দ।
প্রধান অতিথি এর বক্তব্যে শেখ ফজলে শামস পরশ সবার উদ্দেশ্যে বলেন,”শীতবস্ত্র ও মাস্ক ত্রান নয়।গরীব,দুঃস্থ,অস্বচ্ছল এবং প্রতিবন্ধীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে যুবলীগের উপহার।যুবলীগের সকল কর্মীকে গরীব দুস্থ এবং অস্বচ্ছলদের জন্য ভাবতে হবে। ইতিমধ্যে যুবলীগ দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, বাকপ্রতিবন্ধী,তৃতীয় লিঙ্গ সবার জন্য কাজ করছে। করোনাকালীন সময়ে যুবলীগের প্রতিটি কর্মী মানুষের সহযোগিতায় কাজ করেছে। আমাদের প্রেসিডিয়ামের বৈঠকে সেবামূলক খাতের জন্য আলাদা সেল গঠন করা হয়েছে যাতে যুবলীগ মানবিকতার ক্ষেত্রে আরো নিয়ন্ত্রিতভাবে কাজ করতে পারে।” তিনি আরো বলেন জনগণের অধিকার রক্ষায় আপোষ নয়। যুবলীগ যুদ্ধে নেমেছে দুর্নীতিবাজ, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে। যুবলীগে কোন দুর্নীতিবাজ, চাঁদাবাজ এবং সন্ত্রাসীদের’ জায়গা নেই। প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসায় যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন,”পদ্মা সেতু আজ দৃশ্যমান,কর্ণফুলী টানেলের কাজ ৬১ শতাংশ শেষ, ঢাকা-মাওয়া হাইওয়ে,ঢাকা-ময়মনসিংহ হাইওয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম হাইওয়ে সবগুলো চার লেন করে করা হয়েছে।করোনা ভ্যাকসিনও খুব শীঘ্রই দেশে চলে আসবে। এ সবই সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার জন্য।” চলমান পৌরসভা নির্বাচন প্রসঙ্গে বলেন,”যুবলীগ ব্যক্তিস্বার্থে নয় বরং দলের স্বার্থে,নৌকার স্বার্থে কাজ করবে। ব্যক্তির চেয়ে দল বড়, দলের চেয়ে দেশ বড়।”
ঢাকা-০৫ আসনের সংসদ সদস্য ও যাত্রাবাড়ী থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি কাজী মনিরুল ইসলাম মনু বলেন,”মানুষের জন্য কাজ করার ক্ষেত্রে যুবলীগ উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।যুবলীগের প্রতিটি কর্মী যার যার নিজ অবস্থান থেকে মানুষের জন্য করার চেষ্টা করেছে। ” এসময় ঢাকা-০৫ আসনের উপনির্বাচনে কাজ করা নিয়ে যুবলীগের প্রশংসা করেন এবং নির্বাচনে কাজ করা প্রতিটি যুবলীগ কর্মীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত সুভাষ সিংহ রায় বলেন,”যুবলীগের দায়িত্ব বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আদর্শিত হওয়া, মানুষকে ভালোবাসা। জনগণের জন্য কাজ করা।আর জণগণের জন্য কাজ করতে হলে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে।”
করোনাকালীন সময়ে মানুষের জন্য কাজ করতে গিয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের অন্তর্গত ৫০ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি সায়েম করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। শেখ পরশ তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন। এছাড়াও করোনাকালীন সময়ে মানুষের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে কাজ করা যুবলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাইনুল হোসেন খান নিখিল করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যুবলীগ চেয়ারম্যান এবং বিশেষ অতিথিবৃন্দ সকলের কাছে মাইনুল হোসেন খান নিখিল এর জন্য দোয়া কামনা করেন।

Sharing is caring!