নরসিংদীর বেলাবতে মালবাহী দুটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে সাইফুল ইসলাম (১৮) নামে ট্রাকের এক হেলপার এবং টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে ট্রাকের ধাক্কায় তিন মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও তিন জন।

আজ সোমবার সকালে বেলাব উপজেলার দড়িকান্দিতে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এবং ঘাটাইল উপজেলার শিংগুরিয়া এলাকায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত সাইফুল ইসলাম হবিগঞ্জের লাখাই থানার জহিরুল ইসলামের ছেলে। তিনি সিমেন্টবাহী ওই ট্রাকটির চালকের সহকারী ছিলেন। অন্যদিকে, নিহত তিন মোটরসাইকেল আরোহী হলেন- ভুঞাপুর উপজেলার কাগমারীপাড়া গ্রামের ইউসুফের ছেলে মো: রশিদ (১৫), একই গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে মুন্না (২০) ও সৌরভ (১৫)। এছাড়া আহতদের চিকিৎসার জন্য ঢাকায় আনা হয়েছে।

জানা গেছে- ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা সিমেন্টবাহী একটি ট্রাক সিলেটের দিকে এবং সিলেট থেকে ছেড়ে আসা পাথরের খোয়াবাহী আরেকটি ট্রাক ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের দড়িকান্দিতে ট্রাক দুটি পরষ্পর অতিক্রম করার সময় মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় দুটি ট্রাকই মহাসড়কে উল্টে যায় এবং এখনও ঘটনাস্থলে পাথরের খোয়াবাহী ট্রাকটি উল্টে পড়ে আছে। সেটিকে উধারের চেষ্টা চলছে এবং সিমেন্টবাহী ট্রাকটিকে উদ্ধার করা হয়েছে।

হাইওয়ে পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান- সোমবার সকালে এই দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ভৈরব হাইওয়ে থানার পুলিশ ও স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস এসে দুই ট্রাকের ভেতর থেকে চালক ও সহকারীসহ মোট ৪ জনকে উদ্ধার করে। তাদের মধ্যে সিমেন্টবাহী ট্রাকটির হেলপার সাইফুল ইসলামকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। আর আহত তিনজনকে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পরে তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজধানী ঢাকায় পাঠানো হয়।

ভৈরব হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুনুর রহমান জানান- ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। তার পরিবারের সদস্যদের অনুরোধে ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।

এদিকে ঘাটাইল থানা পুলিশ জানায়- তিন মোটরসাইকেল আরোহী ভূঞাপুর উপজেলার কাগমারিপাড়া থেকে টাঙ্গাইলের দিকে যাচ্ছিলো।পথিমধ্যে তারা ঘাটাইল উপজেলার শিংগুরিয়া এলাকায় পৌঁছলে একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংর্ঘষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেলের এক আরোহী নিহত হন এবং দুইজন আহত হয়। পরে আহতদের মধ্যে একজনকে ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন এবং অপর আরেকজনকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

ভূঞাপুর থানার ওসি রাশিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ভুঞাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: রাজিব চৌধুরী পাল বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজনকে হাসপাতালে আনা হয়। এর মধ্যে রশিদ নামের এক যুবককে হাসপাতালে আনার আগেই মৃত্যু হয়। অপরজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানোর পর সেও মারা যায়।

Sharing is caring!