ডেস্ক নিউজঃ অবৈধ পথে ভারতে পাচার হওয়া চার বাংলাদেশি তরুণীকে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ। রোববার দুপুরে পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে এক বছর পর তাদেরকে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

ফেরত আসারা হলো, নড়াইলের আসমা আক্তার (২২), নারায়নগঞ্জের সোনিয়া আক্তার (২০), ফরিদপুরের লিজা শেখ (২৩) ও ঢাকার জেসমিন আক্তার (২৪)।

জানা যায়, অভাব অনটনের সংসারে ভালো কাজের আশায় দালালের খপ্পরে পড়ে দেড়বছর আগে অবৈধ পথে তারা ভারতে পাড়ি জমায়। ভারতের গোয়ায় বাসা বাড়িতে কাজ করার সময় সে দেশের পুলিশ তাদের আটক করে। পরে সেখান থেকে এ আর জেড নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। এসময় দু’দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চিঠি চালাচালির এক পর্যায়ে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন আইনে তাদের দেশে ফেরত পাঠানো হয়।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, ফেরত আসাদের বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। সেখান থেকে যশোর জাস্টিজ এন্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদের গ্রহন করবে তাদের নিজ পরিবারের কাছে তুলে দেওয়ার জন্য।

জাস্টিস এন্ডকেয়ারের যশোর শাখার প্রোগ্রামার কর্মকর্তা শাওমি সুলতানা জানান, সংসারে অভাব অনটনের সুযোগ নিয়ে পাচারকারী ভাল কাজের প্রলোভনে এদেরকে ভারতে পাচার করে। এসব তরুণীদের নাম ঠিকানা সংগ্রহ করে দু’দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের ট্রাভেল পারমিটে দেশে ফেরত আনা হয়। ফেরত আসা তরুণীরা যদি পাচারকারীদের সনাক্ত করে মামলা করতে চায় সব ধরণের সহযোগীতা প্রদান করা হবে।

Sharing is caring!