নোয়াখালী সদর উপজেলার কালাদরাপে ব্যবসায়ী মো. সোহেল হত্যা মামলার আসামিদের বিচার দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। আসামিদের প্রকাশ্যে বিচরণ, জামিনে মুক্ত হয়ে পরিবার ও সাক্ষীদের প্রাণনাশের হুমকির দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তারা।

শনিবার (২৮ নভেম্বর) সকালে নোয়াখালী প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন করে সোহেলের পরিবারের সদস্য ও এলাকার বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ।

নিহত সোহেল উপজেলার কালাদরাপ ইউনিয়নের পশ্চিম শুল্ল্যাকিয়া গ্রামের মো. আবুল কালামের ছেলে এবং নুর পাটোয়ারি হাটের মুদি ব্যবসায়ী ছিলেন।

সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত সোহেলের বাবা আবুল কালাম জানান, ‘আমার সন্তানকে সন্ত্রাসী, সুদের কারবারি নূর মোহাম্মদ ও তার সহযোগী রুবেল, সোহেল, মাকসুদ, ফারুকসহ অজ্ঞাত আরও অন্যান্য সন্ত্রাসীরা গত ৩ আগস্ট সকালে বাড়ির সামনে থেকে প্রকাশ্য দিবালোকে তুলে নিয়ে নির্যাতন করে হত্যা করে। এ ঘটনায় সুধারাম থানায় ওই দিন রাতেই মামলা করা হয়। ঘটনার পরপরই পুলিশ মামলার আসামি মো. ফারুক হোসেনকে গ্রেফতার করে।’

তিনি জানান, ‘মামলার এজাহারে ত্রুটি থাকায় পরে আদালতে মামলা করা হয়। পরে আদালতের নির্দেশে হত্যার ৩ মাস ৭দিন পর লাশ উত্তোলন করে পুলিশ। ইতোমধ্যে সুদের কারবারি ও মামলার ৩ নং আসামি নুর মোহাম্মদ উচ্চ আদালত থেকে অগ্রীম জামিনে এসে নুরু পাটোয়ারি হাটে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসে মামলা তুলে নিতে চাপ দেয়। মামলা তুলে না নিলে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। ফলে পরিবারের লোকজন ও সাক্ষীরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।’

এ ঘটনায় হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানিয়েছেন নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সুধারাম থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) মুহাম্মদ ইমদাদুল হক জানান, ‘এ ঘটনায় আসামিদের মধ্যে একজন জামিনে আছে। এছাড়া কারাগারে আছেন একজন, বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ঘটনার তদন্ত চলছে, ভিসারা রিপোর্ট আসলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। ’

Sharing is caring!