হার্ট অ্যাটাকে না ফেরার দেশে চলে গেলেন আর্জেন্টিনা ফুটবল লিজেন্ড ডিয়েগো ম্যারাডোনা। কয়েক দিন আগে মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার হয় তার। এরপর সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরে গিয়েছিলেন তিনি। তারপরই হার্ট অ্যাটাকে চির বিদায় নিলেন ম্যারাডোনা।

এদিকে তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, বুধবার বুয়েন্স আয়ার্সে নিজ বাড়িতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ৬০ বছর বয়সী ম্যারাডোনা।

আর্জেন্টাইন নিউজ আউটলেট ক্লারিন জানায়, আজ বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে বেসরকারি ওলিভোস ক্লিনিক থেকে তাকে বাড়িতে নেওয়া হয়। ওই সময় তাকে একনজর দেখার জন্য অগণিত দর্শক ভিড় করে এবং ছবি তোলে। তাকে বহনকারী অ্যাম্বুলেন্সের পেছনে ছুটতে থাকেন আর্জেন্টাইন টিভি সাংবাদিকরা।

তার আইনজীবী মাতিয়াস মোরলাহাস বলেন, মূলত অ্যালকোহল আসক্তি কাটানোর জন্য তার চিকিৎসা চলছিল। এছাড়া গত কয়েক বছর ধরে স্বাস্থ্য জটিলতায় ভুগছিলেন ম্যারাডোনা

এর আগে, গত ৩০ অক্টোবর জমকালো আয়োজনে তার সর্বশেষ জন্মদিন পালন করেন ম্যারাডোনা।

তার চলে যাওয়ায় বিশ্বজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

উল্লেখ্য, ম্যারাডোনা আর্জেন্টিনাকে বিশ্বকাপ জেতান ১৯৮৬ সালে। খেলেছেন বোকা জুনিয়র্স, নাপোলি ও বার্সেলোনায়। এরপর ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে ছিটকে দেওয়ার পথে তার ‘ঈশ্বরের হাত’ দিয়ে করা গোলটি নিয়ে দারুণ সমালোচিত হন তিনি।

Sharing is caring!