যুক্তরাজ্যে দ্বিতীয়বারের মতো লকডাউনের ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ডাউনিং স্ট্রিটে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি চার সপ্তাহের (এক মাস) জন্য এই লকডাউনের কথা জানান।

বিবিসির অনলাইন প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী বৃহস্পতিবার (৫ নভেম্বর) থেকে এ লকডাউন শুরু হবে।

সংবাদ সম্মেলনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, লকডাউনে পাব, রেস্তোরাঁ, জিম ও অপ্রয়োজনীয় দোকান-পাট বৃহস্পতিবার থেকে চার সপ্তাহের জন্য বন্ধ থাকবে। তবে প্রথম দফায় লকডাউনের মতো এবার স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ না রেখে চাইলে খোলা রাখা যেতে পারে।

জনসন আরও বলেন, ‘এবারের ক্রিসমাস আলাদা হতে যাচ্ছে, সম্ভবত খুবই আলাদা। কিন্তু আমি আশা ও বিশ্বাস করছি যে, এখন কঠিন পদক্ষেপ নিলে পরবর্তীতে পরিবারের সবাইকে একসঙ্গে হওয়ার অনুমতি দিতে পারব।’

আগামী ২ ডিসেম্বরের পর এসব কড়াকড়ি শিথিল করা হতে পারে বলেও জানান তিনি।

আশঙ্কার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, যে হারে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে তাতে সামনের দিনে হাজার হাজার মানুষ মারা যেতে পারেন। মৃতের সংখ্যা আগের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যেতে পারে। পরিস্থিতি এপ্রিলের চেয়েও খারাপ হতে পারে।

উল্লেখ্য, দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর একই সময়ে ২১ হাজার ৯১৫ জন ব্যক্তি আক্রান্ত হয়েছে। ব্রিটেনে এ পর্যন্ত মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১০ লাখ ১১ হাজার ৬শ’ ৬০ জন। আর এ ভাইরাসে মারা গেছেন ৪৬ হাজার ৫৫৫ জন।

Sharing is caring!