টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে এক হাজার ছক্কার মাইলফলক গড়েছেন ক্রিস গেইল। শুক্রবার রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ম্যাচে এক বিধ্বংসী ইনিংস খেলার পথে এই মাইলফলক গড়েন তিনি। টি-টোয়েন্টির এই ‘ইউনিভার্স বস’কে প্রথম ৭ ম্যাচ বসিয়ে রেখেছিল কিংস ইলাভেন পাঞ্জাব।

আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে টস জিতে পাঞ্জাবকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠায় রাজস্থান। প্রথম ওভারে মনদীপ ফিরতেই মাঠে নামেন গেইল। প্রথমে কিছুটা সামলে খেলেও পরে একের পর এক ছক্কা হাঁকাতে থাকেন তিনি। তবে একটুর জন্য শতরান হাতছাড়া হয় তার। ৬৩ বলে ৯৯ রান করে আর্চারের বলে বোল্ড হন তিনি। মারেন ৬টি চার এবং ৮টি বিশাল ছয়।

আর এর সাহায্যেই ফ্রাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ১ হাজার ছক্কার রেকর্ড গড়লেন গেইল। শুক্রবারের ম্যাচ খেলার আগে গেইলের ব্যাট থেকে এসেছিল ৯৩টি ছক্কা। ধারণা করা হচ্ছিল, পরবর্তী ২ মাচেই মাইলফলক স্পর্শ করে ফেলবেন তিনি।

কিন্তু ভক্তদের আর অপেক্ষায় না রেখে এদিন ৮ ছক্বা হাঁকিয়ে ফ্রাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ১০০১ বার বল উড়িয়ে সীমানা পার করার অনন্য কীর্তি গড়লেন গেইল। কার্তিক তিয়াগিকে ম্যাচের সপ্তম ছক্কা মেরে স্পর্শ করেন এই হাজার ছক্কার মাইলফলক। পরে জোফরা আর্চারের বলে আরেক ছক্কা মেরেছিলেন গেইল।

রেকর্ড বুকে কিন্তু বাকি প্রতিদ্বন্দ্বীরা গেইলের থেকে অনেকটাই পিছিয়ে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা কায়রন পোলার্ড মেরেছেন ৬৯০টি ছয়। তৃতীয় স্থানে র‌য়েছেন ব্রেন্ডন ম্যাকালাম (‌৪৮৫)‌। কাছেপিঠে একমাত্র ভারতীয় বলতে রোহিত শর্মা। তিনি নিজের টি–টোয়েন্টি কেরিয়ারে ৩৭৬টি ছয় মেরেছন।

এদিন ম্যাচে মূলত গেইলের ৯৯ রানের সৌজন্যে কিংসদের নির্ধারিত ২০ ওভারে দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ১৮৫ রান।

ফ্রাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টিতে ৪১০ ম্যাচে অংশ নিয়ে ১ হাজার ৪১টি চার ও ১০০১ ছক্কায় রেকর্ড সর্বোচ্চ ১৩ হাজার ৫৭২ রান সংগ্রহ করেছেন গেইল। অর্থাৎ এই বিশাল সংগ্রহের ৬০০৬ রানই এসেছে ছক্কা থেকে!

টি-টোয়েন্টিতে আরও একটি অনন্য রেকর্ডের মালিক গেইল। এখন পর্যন্ত বিশ্বের একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ ২২টি সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন এ তারকা ব্যাটসম্যান।

Sharing is caring!