শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আব্দুস সালাম বলেছেন শ্রমিক-মালিক, গরীব-ধনী দেশের সকল নাগরিকই সমমর্যাদা সম্পন্ন। এখন বিপদে-দুর্যোগে কেউ আর একা নয়, সরকার আছে সবার পাশে।

তিনি গতকাল নেত্রকোণা জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে জেলার বিভিন্ন উপজেলার অসহায় শ্রমিকদের চিকিৎসা ও তাদের সন্তানদের শিক্ষা সহায়তা বাবদ শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের আর্থিক অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

 

শ্রম সচিব বলেন, টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ট অর্জনের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার দেশের সকল মানুষের জীবনমান উন্নয়নে অন্তর্ভূক্তিমূলক বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় শ্রমিক কল্যাণ তহবিল হতে অসহায়-দুঃস্থ শ্রমিকের চিকিৎসা সহায়তা বাবদ অনধিক ১ লাখ টাকা এবং শ্রমিকদের সন্তাদের উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষা সহায়তা অনুদান হিসেবে অনধিক ৩ লক্ষ টাকা প্রদান করা হয়। কর্মরত অবস্থায় কোন শ্রমিক মারা গেলে মৃত শ্রমিকের অসহায় পরিবারকে ২ লাখ টাকা পর্যন্ত আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয় এবং কর্মরত নারী শ্রমিকদের মাতৃত্বকালীন সময়ে আর্থিক নিরাপত্তার জন্য ২৫ হাজার টাকা এককালীন আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়।

 

সচিব নেত্রকোণা জেলার মোহনগঞ্জ, খালিয়াজুরী ও দূর্গাপুর উপজেলার ন্যায় দূরবর্তী উপজেলার শ্রমিকদের জন্য শ্রমিক কল্যাণ তহবিলের আর্থিক সহায়তা প্রাপ্তির বিষয়ে শ্রমিক, শ্রমিক নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদেরকে যথাযথভাবে অবগত করতে শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম সংক্রান্ত লিফলেট বিতরণ করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ প্রদান করেন।

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের লক্ষ্যে তিনি নেত্রকোণা জেলায় চেক বিতরণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এ কার্যক্রম শুরু করেছেন বলে জানান। পরবর্তীতে শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের চেক প্রাপ্তির জন্য মনোনীত আবেদনকারী সুবিধাভোগীকে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার উপস্থিতিতে চেক প্রদানে এ ধারা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি সকলকে আশ্বস্ত করেন।

 

শিল্প কারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে কোভিড-১৯ ভাইরাসের বিস্তার রোধকল্পে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ৩১ দফা নির্দেশনা প্রতিপালন করতে অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলকে আহবান জানান। অনুষ্ঠানে মোট ৪৫ জনকে ১৪ লক্ষ ৭০ হাজার টাকার আর্থিক অনুদানের চেক প্রদান করা হয়।

জেলা প্রশাসকের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দেওয়ান মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে নেত্রকোণা পৌরসভার মেয়র মোঃ নজরুল ইসলাম খান, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের ময়মনসিংহ কার্যালয়ের উপ-মহাপরিদর্শক রাজীব চন্দ্র ঘোষসহ নেত্রকোনা জেলার পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ বক্তৃতা করেন।

Sharing is caring!