তৃণমূল পর্যায়ে ভূমিদস্যু, দলীয় পদ বিক্রি, মাদকের সাথে সম্পৃক্তদের বিরুদ্ধে অভিযানের বিকল্প নেই

বিশ্বকে শান্তিময় রাখতে রোহিঙ্গাদের বিষয়ে ক্ষমতাশীল দেশগুলোর ঘুম ভাঙতে হবেই

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনী ইশতেহারেই দুর্নীতির প্রশ্নে ‘জিরো টলারেন্সে’র অঙ্গীকারের কথা উল্লেখ করেছিলেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। নির্বাচন প্রক্রিয়াকে ঘিরে কিছু ভিন্ন স্বর শোনা গেলেও যে বিষয়ে কোনো সংশয় ছিল না তা হল বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত ভাবমূর্তি, জনপ্রিয়তা আর দেশের বদলে যাওয়ার চমকে দেয়া সাফল্য। হয়তো অত্যুক্তি হবে না, সমসাময়িক বাংলাদেশে তো …বিস্তারিত

বিশ্বকে শান্তিময় রাখতে রোহিঙ্গাদের বিষয়ে ক্ষমতাশীল দেশগুলোর ঘুম ভাঙতে হবেই

বিশ্বকে শান্তিময় রাখতে রোহিঙ্গাদের বিষয়ে ক্ষমতাশীল দেশগুলোর ঘুম ভাঙতে হবেই

মানবিক দৃষ্টিকোন ও মুসলিম রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশ মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা লাখ লাখ ভয়ার্ত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছিল। যেখানে বিশ্বে অনেক প্রভাবশালী ও মুসলিম রাষ্ট্র তাদের পাশে দাঁড়াতে বা প্রতিবাদ জানাতে পারেনি। বাংলাদেশ সরকার শত প্রতিকুলতার মাঝেও রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছিলেন সেই দিন। ঝুঁকি নিয়েই উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছিল বর্ডার। মানুষের জীবনের মূল্য দিয়েছে বাংলাদেশ। …বিস্তারিত

রক্ষকই যদি ভক্ষক হয়, তাহলে জাতি কি পাবে?

দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে, বিশ্বর বুকে উন্নয়নের মডেল বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ বির্নিমানে গণতন্ত্রের মানসকন্যা, সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা যখন দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে তখন যদি প্রজাতন্ত্রের কোনো কর্মচারীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আসে বাস্তব অর্থেই হৃদয়ে রক্ত ক্ষরন হয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর। যেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুর্নীতি বন্ধে সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ভেতন তিনগুণ করেছে। যিনি …বিস্তারিত

একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প জাতীয় জীবনে এক নতুন বিপ্লব

মো. আহসান করিম চৌধুরী :: একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নপ্রসূত একটি গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ। দেশের উন্নয়ন ও জনকল্যাণে গৃহীত ১০টি বিশেষ উদ্যোগের অন্যতম একটি। ২০২১ সালের মধ্যে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত মধ্যম আয়ের বাংলাদেশ বিনির্মাণসহ “ডিজিটাল বাংলাদেশ” গড়ার বিষয়ে সরকার দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।   এ অঙ্গীকার বাস্তবায়নে বর্তমান সরকার স্থানীয় সম্পদ, মানবশক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার তথা …বিস্তারিত

ভাগ্যের দুয়ারে “ছাত্রলীগ কর্মী” অসহায় !

গৌরব ও ঐতিহ্যের সফল এক সংগঠনের নাম বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বাংলাদেশের মানচিত্রে যার অবদান স্মরনীয়। ইতিহাস বলে সংগ্রাম থেকে গড়ে ওঠা সংগঠন ছাত্রলীগ। ৫২’র ভাষা আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা রাখাসহ ৬৬ এর ছয় দফা, ৬৯ এর গণঅভ্যুত্থান, ৭০ এর নির্বাচন, ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ ও ৯০’ এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনসহ দেশের সকল আন্দোলন সংগ্রামে ছাত্রলীগের পথচলাকে করেছে আরো …বিস্তারিত

সর্বত্র এতো অস্থিরতা কেন?

দেশের রাজপথসহ সার্বিক পরিস্থিতি শান্ত থাকলেও দায়িত্বশীল অনেক প্রতিষ্ঠান ও সংস্থায় অস্থিরতা বিরাজ করছে। অসহায় শরণার্থী রোহিঙ্গাদের চলমান আশ্রয় প্রক্রিয়া ও তাদের নিরাপত্তা ইস্যুতে বিশ্বের উন্নয়নশীল রাষ্ট্রগুলো বাংলাদেশকে সাধুবাদ জানালেও, মিয়ানমান সরকার ও সেনাবাহিনীর নির্মম ও বর্বর নির্যাতনের বিরুদ্ধে কার্যকরি কোন পদক্ষেপ নেয়নি তারা। এ দিকে সরকারের দায়িত্বশীল মন্ত্রীসহ অনেকেই শঙ্কা প্রকাশ করছে যে, রোহিঙ্গাদের …বিস্তারিত

ডাকসু অচল থাকায় লাভবান কারা?

ঘর’কে ‍আধার করো না, বাহিরের দুষ্টোরা হয় জাগ্রত। সত্য’কে দমিয়ে রেখে, হয় না কর্ম পবিত্র! ডাকসু নির্বাচন ১৯ বছর বন্ধ থাকলেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নির্বাচন কিন্তু নিয়মিত হচ্ছে। (২০০৮ সালে হয়নি)। বিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স এসোসিয়েশন, তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারী সমিতি বা চতুর্থ অথবা কারিগরি সমিতির নির্বাচন কিন্তু বন্ধ থাকেনি গত দেড় যুগে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অনেকেই বিশ্বাস …বিস্তারিত

ডাকসুবিহীন ছাত্র রাজনীতি!

অভিভাবকহীন শূন্য ঘরে, ক্ল্যান্ত সবাই বাতাস ভয়ে ….! ডাকসুবিহীন ছাত্র রাজনীতির ‍ইতিকথা: ডাকসুর সর্বশেষ কমিটির (১৯৯০ সালের ৬ই জুন) প্রকাশিত একটি স্মরণিকায় ডাকসু সম্পর্কে তৎকালীন অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান স্যার লিখেছেন, “ এখন সবাই বলে ডাকসু। তার অনুকরণে রাকসু, জাকসু, ইউকসু ইত্যাদি চলছে। অথচ আমি যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হই, ১৯৫৩ সালে তখন ডাকসুর নামও শুনিনি। …বিস্তারিত

ডাকসু নির্বাচন না হওয়ার কারণ

যুদ্ধ নয় শান্তি, কলমে হয় সন্ধি। বন্ধি নয় পরাধিন, শাষকের ‍‍ইচ্ছা মানে নীতি…!!! নির্বাচন না হওয়ার কারন: ডাকসু নির্বাচন না হওয়ার পেছনে বড় কারনটি হচ্ছে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের অব্যন্তরীন দ্বন্দ্ব। এ ছাড়া ক্যাম্পাস ও হলগুলোয় বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের সহাবস্থান নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এটাও ডাকসু নির্বাচন না হওয়ার অন্যতম কারন। ১৯৯০ সালের ৬ …বিস্তারিত

ডাকসুর গঠনতন্ত্র ও নির্বাচন খতিয়ান

প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ। শিক্ষা, সংস্কৃতি, রাষ্ট্র ও সমাজ সার্বিকভাবে রাজনৈতিক আন্দোলনের সূতিকাগার ‍এ বিদ্যাপীঠ…. ডাকসু গঠনতন্ত্র ও সংশোধন: ডাকসুর নয়া গঠনতন্ত্রে বলা হয়েছে ডাকসু নির্বচনের পর মাত্র এক বছর তার কার্যকারিতা থাকিবে। এই সময়ের পর যদি ডাকসু নির্বাচন না হয় তবে ৩ মাস পর্যন্ত উহার কার্যকারিতা থাকিবে। ইহার পর আপনাআপনিই …বিস্তারিত

পাতা 1 মোট পাতা 3 টি123

প্রধান উপদেষ্টা: এইচ এম রেজাউল করিম রেজা
উপদেষ্টা: মোজাহারুল ইসলাম (মেহেদী)
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: শিকদার মেহেদী

সম্পাদক ও প্রকাশক: নূরে আলম জীবন

অফিস : ৫৫ পুরানা পল্টন, আজাদ সেন্টার (লিফ্ট-৩)
মোবাইল: ০১৮২২-৮০৪২৭২
ইমেইল: unlimitednews24@gmail.com