কক্সবাজারের উখিয়ার পালংখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দু’গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনায় মোহাম্মদ জাবেদ (২৫) নামে এক রোহিঙ্গা যুবক নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) ভোররাত ৩টার দিকে উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের তানজিমার খোলা রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের ডি/৮ ব্লকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জাবেদ উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের তানজিমারখোলা রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে ডি/৪ ব্লকের বাসিন্দা ও রোহিঙ্গা নাগরিক মোহাম্মদ ইসলামের ছেলে।

কক্সবাজার ১৬ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)-এর অধিনায়ক পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম তারিক জানান, সোমবার গভীর রাতে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী মোজাম্মেল ওরফে শেখ ও মৌলভী ইউনুসের নেতৃত্বে ১০-১২ জন অস্ত্রধারী নিয়ে ডি/৮ ব্লকের রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় পালংখালীর ঘোনারপাড়ার অপর একটি সন্ত্রাসী দলের নুরুল হাকিম ওরফে মনুইয়ার নেতৃত্বে ৭-৮ জন তাদের পথরোধ করেন এবং রাতের বেলায় রোহিঙ্গা শিবির সংশ্লিষ্ট এলাকায় ঘোরাঘুরি না করতে নিষেধ করেন। এতে দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে দু’পক্ষের মধ্যে ৩-৪ রাউন্ড গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। ওই সময় উভয় পক্ষের গোলাগুলিতে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের ডি/৪ ব্লকের বাসিন্দা সন্ত্রাসী মোহাম্মদ জাবেদ গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে নেয়া হলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক জাবেদকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশ সুপার তারিক আরও বলেন, নিহত রোহিঙ্গা নাগরিকের লাশটি উদ্ধার করে শিবিরের ইনচার্জ (সিআইসি) কার্যালয়ে রাখা হয়েছে। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানোর কাজ চলছে এবং এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

Sharing is caring!