রাজধানীর কলাবাগানে ইংলিশ মিডিয়াম মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ‘ও’ লেভেল (১০ম) শ্রেণির ছাত্রী আনুশকাহ নূর আমিনকে (১৮) ধর্ষণের পর হত‌্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন‌্য ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর্থীকে গুরুতর অবস্থায় আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতলে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতলে নিয়ে যায়।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর মা বলেন, ‘আমার মেয়ের এ বছর ‘ও’ লেভেল পরীক্ষা দেয়ার কথা ছিল। পরীক্ষার সাজেশন্স দেয়ার কথা বলে ওকে ডেকে নিয়ে যায় ফারদিন ইফতেখার দিহান।’

তিনি আরো বলেন, ‘ওরাই আমাকে ফোন দিয়ে বলেছে আন্টি ও (ভূক্তভোগী) অসুস্থ। তখন আমি বলেছি ভালো মেয়ে গেল, অসুস্থ কীভাবে হয়েছে। বলেছে আমাদের সাথেই ছিল তবে এখন সেন্সলেস হয়ে পড়েছে। পরে ওরাই আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতাল এ নিয়ে যায়। আমি হাসপাতালে পৌঁছার আগেই আবার ফোন দিয়ে বলে ও (ভূক্তভোগী) মারা গেছে। হাসপাতালে গিয়ে দেখি প্রচণ্ড রক্তক্ষরণ হয়েছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।’

এ বিষয়ে কলাবাগ থানার এসআই জাকির হোসেন বলেন, ‘কলাবাগানে স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন‌্য ওই শিক্ষার্থীর প্রেমিকসহ ৪ সহপাঠীকে আটক করা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক হাসপাতালে মর্গে রাখা হয়েছে। বিস্তারিত জানার চেষ্টা চলছে।’

Sharing is caring!