ডেস্ক নিউজঃ মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন টাইমস গত বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) দাবি করে, ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হত্যা করার হুমকি দিয়েছেন। এ নিয়ে দেখা দিয়েছে নানা প্রতিক্রিয়া।

এমতাবস্থায় নিজের অবস্থান জানিয়েছে ইরান। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ইরাকের সাবেক শাসক সাদ্দাম ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প; প্রেসিডেন্ট রুহানির ভাষায় পরিণতিতে দু’জনের মধ্যে মিল রয়েছে, প্রেসিডেন্ট রুহানির এই বক্তব্যকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করেছে ওয়াশিংটন টাইমস। খবর পার্সটুডের।

পত্রিকাটির কঠোর সমালোচনা করে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে এক টুইটার বার্তায় বলেছেন, ‘বিদেশি নেতাদের কাপুরুষোচিতভাবে হত্যা করা মার্কিন-ইসরাইলি বাণিজ্য; ইরানি নয়।’

তিনি বলেন, ‘সাংবাদিকতার নীতি-নৈতিকতার প্রশ্নে ওয়াশিংটন টাইমসের এর চেয়ে বেশি পরিপক্কতা প্রদর্শন করা উচিত ছিল। কিন্তু বানোয়াট খবর প্রকাশ করা পত্রিকাটির অভ্যাসে পরিণত হয়েছে এবং এটি এর আগেও ইরান সম্পর্কে ভুয়া খবর প্রকাশ করেছে।’

এদিকে পত্রিকাটি এমন সময় এ দাবি করে যখন প্রেসিডেন্ট রুহানি গত বৃহস্পতিবারই এক বক্তব্যে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ইরাকের সাবেক শাসক সাদ্দামের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন।

তিনি বলেছিলেন, ‘সাদ্দাম ইরানের বিরুদ্ধে আট বছরের যুদ্ধ চাপিয়ে দিয়েছিল এবং পরে তার সরকারের পতন হয়। অন্যদিকে ট্রাম্প গত তিন বছর ধরে ইরানের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক যুদ্ধ চালিয়েছেন এবং আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে তার প্রশাসনেরও পতন ঘটতে যাচ্ছে।’

ইরানের প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, ‘ট্রাম্প যেসব অপরাধ ও জুলুম করেছেন তার ফলে ইতিহাসে তার নাম অপমানিত ও লাঞ্ছিতদের সারিতে স্থান পাবে।’

Sharing is caring!