ক্যানসারে আক্রান্ত অভিনেতা আব্দুল কাদেরকে ভারতের চেন্নাইয়ের হাসপাতাল থেকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। রবিবার দুপুরে তাকে ঢাকায় আনা হয়। তবে এরপরই এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এই অভিনেতাকে। তার শারীরিক অবস্থা ভালো নেই। এমনটি জানিয়েছেন আব্দুল কাদেরের পুত্রবধূ জাহিদা ইসলাম জেনি।

জাহিদা ইসলাম জেমি জানান, তার শ্বশুরকে এই মুহূর্তে কেমোথেরাপি দেওয়ার মতো অবস্থায় নেই। কারণ, এই থেরাপি সহ্য করার মতো যে শারীরিক শক্তি দরকার, তা এই অভিনেতা সহ্য করতে পারবেন না। তার রক্তের হিমোগ্লোবিন ক্রমশ কমছে।

বেশ কিছুদিন ধরেই আবদুল কাদের অসুস্থ। ঠিকমতো খেতে পারছিলেন না। বিভিন্ন হাসপাতালে একাধিকবার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেও তার কোনো রোগ ধরা পড়ছিল না। পরে পুরো শরীর সিটি স্ক্যান করে জানা যায়, এই অভিনেতার টিউমার হয়েছে। টিউমার ধরা পড়ার পর পারিবারিক সিদ্ধান্তে তাকে চেন্নাইয়ের ক্রিশ্চিয়ান মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এই হাসপাতালে আবারও পরীক্ষা–নিরীক্ষা করা হলে ডাক্তাররা বোর্ড মিটিং করে পরিবারকে ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার খবর দেন। ক্যানসার বর্তমানে সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়েছে। এটি এখন চতুর্থ স্টেজে রয়েছে।

উল্লেখ্য, আব্দুল কাদেরকে গত ৮ ডিসেম্বর চেন্নাইয়ে নেওয়া হয়। পরে ১৫ ডিসেম্বর ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানা যায়। চেন্নাইয়ের ক্রিশ্চিয়ান মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসায় তেমন অগ্রগতি হয় নি।

হুমায়ূন আহমেদের কোথাও কেউ নেই ধারাবাহিক নাটকে ‘বদি’ চরিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন আব্দুল কাদের। অভিনয়ের পাশাপাশি বেশ কিছু বিজ্ঞাপনের কাজও করেছেন তিনি। এ ছাড়া জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’র পরিচিত মুখ তিনি। হাস্যরসাত্মক চরিত্রে অভিনয়ের জন্য টেলিভিশনের পর্দায় তিনি তুমুল জনপ্রিয়।

Sharing is caring!