ডেস্ক নিউজঃ হোয়াইট হাউসের নিয়ন্ত্রণের কাছে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। তারপরও সম্ভাবনা ফুরিয়ে যায়নি ক্ষমতাসীন রিপাবলিক্যান প্রার্থী বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। তাই ঝুলে থাকা চারটি রাজ্যের ফলের দিকে মুখিয়ে রিপাবলিকানরা। এখন পর্যন্ত বাইডেন ২৬৪ ও ট্রাম্প ২১৪টি ইলেক্টোরাল ভোট পেয়েছেন।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ফক্স নিউজ ও আলজাজিরাসহ অন্যান্য সংবাদমাধ্যমগুলোর মাঠ পর্যায়ের দেয়া তথ্যমতে, ভোটগ্রহণ শেষে গণনার শুরু থেকেই এগিয়ে ছিলেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। তবে বাংলাদেশ সময় গতকাল রাত পর্যন্ত ঝুলে থাকা ৭টি রাজ্যের মধ্যে ৫টিতেই প্রথমদিকে এগিয়ে ছিলেন ট্রাম্প। কিন্তু শেষ পর্যায়ে এসে মিশিগান ও উইসকনসিনে জয়ের ফলে এগিয়ে যান বাইডেন।

এতে করে মিশিগানের ১৬ ও উইসকনসিনের ১০টি ইলেক্টোরাল ভোট তার ঝুলিতে পড়ে। ফলে ২৩৮টি থেকে উড়ে ২৬৪-তে পৌঁছান বাইডেন। আর এতে করেই ব্যবধান বাড়ে দুই প্রার্থীর।

অন্যদিকে, ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট রিপাবলকিক্যান প্রার্থী ট্রাম্প আছেন আগের জায়গাতেই। ২১৪টিতে জয় পেয়ে পিছিয়ে তিনি। তবে, তার সুযোগ এখনও ফুরিয়ে যায়নি। মার্কিন নির্বাচনে শেষ পর্যায়ে এসে ঘুরে দাঁড়ানো নতুন কিছু নয়। ট্রাম্পও যদি সে রকম করে বসেন অবাক হওয়ার কিছুই থাকবে না।

এখনও ফল প্রকাশ বাকি রয়েছে পেনসিলভেনিয়া, জর্জিয়া, উত্তর ক্যারোলিনা ও নেভাডার। যেখানে ইলেক্টোরাল ভোট রয়েছে যথাক্রমে ২০, ১৬, ১৫ ও ৬টি। ট্রাম্পকে রাজত্ব ধরে রাখতে হলে অবশ্যই সবগুলোতে জয় পেতে হবে তাকে।

কিন্তু মাঠ পর্যায়ের তথ্য বলছে, বাইডেন যেগুলোতে পিছিয়ে ছিলেন সেগুলোতে যখন জয় পেয়েছেন, সেখানে অপ্রকাশিত রাজ্যগুলোর মধ্যে যেগুলোতে তিনি এগিয়ে রয়েছেন সেখানে তাকে পরাজিত করা ততটা সহজ হবে না।

আমেরিকার মসনদে বসতে বাইডেনের দরকার মাত্র ৬টি ইলেক্টোরাল ভোট। এর মধ্যে নেভাডায় এগিয়ে তিনি। যেখানে আছে সেই মূল্যবান ৬টি ভোট। এছাড়া জর্জিয়ায় ট্রাম্পের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছেন তিনি। সেখানেও জয়ের সম্ভাবনা রয়েছে তার। ফলে একরকম জয় সুনিশ্চিত বাইডেনের। তারপরও আমেরিকার নির্বাচন বলে কথা। তাই, যেকোন সময় যে কেউ-ই চমক দেখাতে পারেন।

অন্যদিকে শুধু ইলেক্টোরাল ভোটেই নয়, জনগণের ভোটেও এগিয়ে বাইডেন। যেখানে তিনি তার দলের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকেও ছাড়িয়ে গেছেন। ২০০৮ সালের নির্বাচনে আমেরিকার সবচেয়ে কম বয়সী প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা পেয়েছিলেন ৬ কোটি ৯৪ লাখ ৯৮ হাজার ৫১৬ ভোট। আর এ নির্বাচনে এখন পর্যন্ত বাইডেন ভোট পেয়েছেন ৭ কোটির বেশি।

Sharing is caring!