রাত পোহালেই বাগেরহাটের শরণখোলায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে এবং রাজনগর ও পঞ্চকরণ ইউনিয়নের বিভিন্ন পদে উপনির্বাচন। জেলা নির্বাচন অফিস ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। সোমবার (১৯ অক্টোবর) থেকে কেন্দ্রে কেন্দ্রে নির্বাচনী সরঞ্জাম পাঠানো শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে।

বাগেরহাট জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, শরণখোলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে আাওয়ামী লীগের রায়হান উদ্দিন শান্ত, বিএনপির মতিয়ার রহমান খান ও জাতীয় পার্টির এ্যাড. মো. শহিদুল ইসলাম তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। এই নির্বাচনে উপজেলার ৩৩টি কেন্দ্রে ৮৯ হাজার ৩৩৭ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে ৪৪ হাজার ৬০২ জন পুরুষ ও ৪৪ হাজার ৭৩৫ জন নারী ভোটার রয়েছে।

বাগেরহাট জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও উপ-নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ফরাজী বেনজীর আহমেদ বলেন, উপ-নির্বাচন ঘিরে আমরা সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। আমরা প্রিজাইডিং অফিসারদের কাছে ব্যালট বাক্স, স্যানিটাইজার ও বিভিন্ন মালামালসহ বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। প্রিজাইডিং অফিসারবৃন্দ মালামাল নিয়ে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে অবস্থান নিয়েছেন।

২০১৯ সালের ৫ ডিসেম্বর শরণখোলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন আকন মারা গেলে পদটি শূন্য হয়। দীর্ঘ ১০ মাস পরে ১৪ সেপ্টেম্বর নির্বাচন কমিশন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন।তফসিল অনুযায়ী ২৩ সেপ্টেম্বর মনোনয়ন পত্র জমাদানের শেষ তারিখ। ২৬ সেপ্টেম্বর যাচাই-বাছাই, ৩ অক্টোবরের মধ্যে প্রার্থীতা প্রত্যাহার এবং ২০ অক্টোবর ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়াও একই দিনে জেলার মোল্লাহাট উপজেলার কোদালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের কোদালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদে, মোরেলগঞ্জ উপজেলার পঞ্চকরণ ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ড সদস্য এবং রামপাল উপজেলার রাজনগর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

Sharing is caring!