ইরানের বিরুদ্ধে এক তরফা অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখার হুমকি দেয়ার পর পারস্য উপসাগরে একটি বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ পাঠিয়েছে মার্কিন প্রশাসন। এরই মধ্যে ‘ইউএসএস নিমিৎজা’ নামের বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজটি হরমুজ প্রণালী পেরিয়ে পারস্য উপসাগরের জল সীমায় প্রবেশ করেছে। গত ১০ মাসের মধ্যে এই প্রথম কোন মার্কিন বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ পারস্য উপসাগরে মোতায়েন করা হলো। খবর এবিসি নিউজ, ইউএস নিউজ ও পার্সটুডে’র।

গতকাল শুক্রবার মার্কিন পঞ্চম নৌবহর এক বিবৃতিতে বলেছে, পারস্য উপসাগরে আমেরিকা একটি স্ট্রাইক গ্রুপ পাঠিয়েছে যার নেতৃত্বে রয়েছে ইউএসএস নিমিৎজ। এ গ্রুপে রয়েছে দুটি গাইডেড মিসাইল ক্রুজার এবং একটি গাইডেড মিসাইল ডেস্ট্রয়ার। পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলের মিত্রদেরকে প্রশিক্ষণ দেয়ার কাজ করবে এই স্ট্রাইক গ্রুপ।

বিবৃতিতে বলা হয়, গত জুলাই মাস থেকে নিমিৎজ পঞ্চম নৌবহর এলাকার মধ্যে কাজ করছে এবং বর্তমানে তারা প্রস্তুতির শীর্ষ পর্যায়ে রয়েছে।

গত মঙ্গলবার মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, জাতিসংঘের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হলে আমেরিকা একাই তা বহাল থাকবে এবং রাশিয়া ও চীনের কাছ থেকে ইরানকে অস্ত্র কেনার সুযোগ দেয়া হবে না। ইরানের অস্ত্র কেনা ঠেকাতে যা করা প্রয়োজন আমেরিকা তাই করবো। ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখার জন্য আমেরিকা প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেবে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে ইউএসএস আব্রাহাম লিংকন বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ পারস্য উপসাগরে থেকে চলে যায়। এরপর ইউএসএস নিমিৎজ স্ট্রাইক গ্রুপ পারস্য উপসাগরে এল।

Sharing is caring!