উত্তর কোরিয়া বলছে, দেশটিতে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পর দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে সীমান্তবর্তী কেসং শহরকে বাকি দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন করে সেখানে লকডাউন জারি করা হয়েছে।

বলা হচ্ছে, আক্রান্ত ব্যক্তি গত সপ্তাহে দক্ষিণ কোরিয়া থেকে ফিরে এসেছেন।

এর পর পরই উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-আন জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন। বৈঠক ডেকেছেন তার পলিটব্যুরোর সদস্যদের সঙ্গে।

“ভাইরাসটি হয়তো দেশে ঢুকে পড়েছে,” রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থার সঙ্গে এই মন্তব্য করেছেন কিম জং আন। ধারণা করা হচ্ছে, উত্তর কোরিয়ায় এটাই প্রথম করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। এর আগে দেশটিকে করোনাভইরাস থেকে মুক্ত বলে ঘোষণা করা হয়েছিল।

দেশেটির সংবাদমাধ্যম জানায়, ১৯ জুলাই এই সন্দেহভাজন ব্যক্তি অবৈধভাবে সীমানা অতিক্রম করে কিমের দেশে ঢুকেছেন। যার মাধ্যমে কাঠগড়ায় দক্ষিণ কোরিয়া। কিন্তু দক্ষিণ কোরিয়ার পক্ষ থেকে বিশ্বের অন্যতম সুরক্ষিত সীমানা দিয়ে অবৈধ প্রবেশের কোনও খবর নেই। তার ফলেই করোনার সঙ্গে প্রবল কূটনৈতির গন্ধও অনুভব করছেন অনেকেই।

Sharing is caring!