টেলিভিশন নাটক ও চলচ্চিত্রে অভিনয়ে এরই মাঝে প্রশংসিত হয়েছেন গোলাম ফরিদা ছন্দা। এবার তিনি ক্যামেরার পেছনে কাজ শুরু করছেন। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে তিনি নির্মাণ করছেন একটি নাটক। ‘জোছনা’ শিরোনামের এ নাটক পরিচালনার পাশাপাশি তিনি নিজেই নাম ভুমিকায় অভিনয় করছেন। শোয়েব চৌধুরীর গল্পে চিত্রনাট্য ও সংলাপ করেছেন ফেরারী ফরহাদ।

এ প্রসঙ্গে গোলাম ফরিদা ছন্দা বলেন, ‘১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। এ বছর জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট ব্যতিক্রমী একটি উদ্যোগ নিয়েছে। ক্রাউন কর্তৃপক্ষ আমাকে নির্মাণের প্রস্তাব দিলে বিষয়টি ভীষণভাবে আমার মনে নাড়া দেয়। কারণ এমন একটি দিবসের কাজের প্রস্তাব পেয়েছি, যা সত্যিই অনেক ভাগ্যের ব্যাপার। এ জন্যেই কোন কিছু না ভেবেই রাজি হয়ে যাই। এর আগেও নির্মাণের প্রস্তাব পেয়েছিলাম কিন্তু আগ্রহ করিনি।

ছন্দা আরো বলেন, ‘অনেক বছর ধরেই তো অভিনয় করছি, কিন্তু কখনো পরিচালনায় আসার কথাটা সেভাবে ভাবিনি। ভালো একটা প্রস্তাব পেয়েছি বলেই কাজটি করছি। মিডিয়ার করুণ অবস্থায় ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট যেভাবে কাজ করছে, তা সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। বঙ্গবন্ধুর কাজে নিজেকে যুক্ত রাখতে পারছি এটিও আমার জন্য বিশাল প্রাপ্তি। ১৫ আগষ্ট এর ভয়াবহ এবং মর্মান্তিক ঘটনা স্মরণ করলেই গায়ের লোম কাটা দেয়। সেই ভাবনা থেকেই সুযোগটি কাজে লাগানো। নাটকের নাম ভূমিকায়ও আমি থাকছি। আমার মনে হয় দর্শক হতাশ হবেন না। দর্শক ভালো কিছু পেতে যাচ্ছেন।’

ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট এর প্রযোজনায় শোক দিবসকে কেন্দ্র করে ১২টি নাটক নির্মিত হচ্ছে। গোলাম সোহরাব দোদুল, ফরিদুল হাসান, শামীম জামান, দেবাশীষ বিশ্বাস, আদিবাসি মিজান, তাজু কামরুল, মোস্তাফিজুর রহমান মানিক, সুজিদ বিশ্বাস, বন্ধন বিশ্বাস, আবু হায়াৎ মাহমুদ ও সুমন ধর তারা নাটকগুলো নির্মাণ করছেন।

Sharing is caring!