আনলিমিটেড নিউজ ডেস্কঃ বলিউড তারকা ইরফান খান মারা গেছেন। বুধবার মুম্বইয়ের কোকিলাবেন হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

অসুস্থ হয়ে মুম্বইয়ের কোকিলাবেন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ইরফান খান। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৫৪। শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যার কারণে তাঁকে মঙ্গলবার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

কোলোনে সংক্রমণের কারণে তাঁকে আইসিইউ-তে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল। এর আগে ২০১৯-এ ইরফান জানিয়েছিলেন যে, তিনি নিউরোএনডোকট্রিন টিউমারের সমস্যায় ভুগছেন।

বুধবার সকালে ট্যুইটে পরিচালক সুজিত সরকার ইরফানের মৃত্যুর খবর জানান। ট্যুইটারে তিনি লেখেন, ‘প্রিয় বন্ধু ইরফান। তুমি লড়েছো, লড়ে গিয়েছ। আমি তোমাকে নিয়ে সবসময় গর্বিত। আবার আমাদের দেখা হবে। সুতপা ও বাবিলের জন্য সমবেদনা রইল। তোমরাও লড়াই করেছ। সুতপা তুমি সর্বস্ব দিয়ে লড়েছ। ওম শান্তি। ইরফান খান তোমাকে স্যালুট’।

ইরফানের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে চলচ্চিত্র জগতে।

স্ত্রী সুতপা ও দুই সন্তানকে রেখে চিরবিদায় নিলেন ভারতীয় চলচ্চিত্রের এই খ্যাতিমান অভিনেতা।

গত সপ্তাহেই ইন্তেকাল করেন ইরফানের মা সায়েদা বেগম। লকডাউনের কারণে জয়পুরে মায়ের শেষকৃত্যে যোগ দিতে পারেননি এ অভিনেতা।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে নিউরোঅ্যান্ডোক্রাইন টিউমার ধরা পড়ে ইরফানের। এর পর এক বছর বিদেশে থেকে চিকিৎসা করিয়েছিলেন। মার্চ মাসে মুক্তি পায় ইরফানের ‘আংরেজি মিডিয়াম’ সিনেমা।

তখনও শরীর অসুস্থ ছিল বলে তাকে প্রচারে দেখা যায়নি। যদিও করোনার কবলে কয়েক দিন পরই বন্ধ হয়ে যায় এই ছবির প্রদর্শন।

বাংলাদেশি নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘ডুব’ সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন ইরফান খান। এই সিনেমা তাকে বাংলাদেশের মানুষের কাছে বিশেষ পরিচিতি এনে দেয়।

Sharing is caring!