শামসুল হক মামুন, কিশোরগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ

কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব রেলওয়ে স্টেশন থেকে কিশোরগঞ্জ যাওয়ার রেল লাইন যেন মৃত্যুর ফাঁদ।

ভৈরব রেলওয়ে স্টেশন থেকে কিশোরগঞ্জ যাওয়ার পথে ভৈরব আউটার পার হয়ে ভৈরব-লক্ষীপুর উপর দিয়ে যাওয়া রেল লাইনের বিভিন্ন স্থানে খেয়াল করলে দেখা যায় লাইনের জয়েন্ট গুলোতে নাট বল্টু নেই।

ভৈরব-লক্ষীপুরের জন সাধারণের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনাস্থলে গেলে ক্যামেরায় উঠে আসে এমনই কিছু ভয়ানক তথ্যচিত্র।

ভৈরব-লক্ষীপুর স্থানীয় লোকজন আরো জানান এই লাইন দিয়ে গাড়ি গুলো খুবই বিপদজনক ভাবে আসা-যাওয়া করতে হয় কিশোরগঞ্জ লাইনে মাঝেমধ্যে রেল লাইন চুত্য হওয়ার ঘটনা ঘটে তার পরেও রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ নিচ্ছে না কোনো বিশেষ উদ্যোগ।

রেলওয়ে লাইনের এই জোড়া গুলো মেরামত হচ্ছে না কেন এই বিষয়ে ফোন করে জানতে চাইলে ভৈরব কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে লাইনের দায়িত্বে থাকা উর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী পি,ডব্লিউ মোঃ আনিসুজ্জামান জানায় এই বিষয়ে আমি কিছু জানিনা আমার কাছে কোন রিপোর্ট আসেনি ১০-১৫ দিনের মধ্যে।

তিনি আরো বলেন লাইন পরিদর্শন করে পয়েন্ট জোড়া রেল লাইনের দেখার দায়িত্বে রয়েছেন কিছু কর্মচারী উনারা রেল লাইন গুলো দেখে আমাদেরকে অবগত করলে আমরা তৎক্ষণাৎ পদক্ষেপ নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করি।

জন সাধারণের অভিযোগ নাট বল্টু নেই ২০ দিনের বেশি হয়ে গেছে কিন্তু যারা রেল লাইনে দায়িত্ব আছেন তাদের কাছে কোন রিপোর্ট নেই।

দায়িত্ব থাকা রেল লাইন পরিদর্শন কর্মচারী দায়িত্বের অবহেলার শিকার হতে পারে হাজার ও জীবন রেল দূ্র্ঘটনা হলে মৃত্যুর আশংকা বেশি থাকে।

BBC news বাংলা একটি প্রতিবেদন করেছে ২৪ শে নম্বেম্ভর ২০১৯ইং তারিখে ২০১৪ জানুয়ারি থেকে ২০১৯ জুন ৫ বছরের ট্রেন দূর্ঘটনা ঘটেছে ৮৬৮ টা বাংলাদেশ রেল বিভাগের হিসাব।

জন সাধারন রেলপথ কে নিরাপদ হিসেবে বেছে নিয়েছে তবে অবহেলিত রেলওয়ে কর্মকর্তাদের কাছে রেল পথ।

সরকারি চাকরি যেন সোনার হরিণ ছোট বেলা থেকে শুনতে শুনতে বড় হয়েছে অনেকে তবে সরকারি চাকরির জন্য বিক্রি করেছেন অনেকেই বাবার জমি তবে তার কারন কি ধরে নিব সরকারি চাকরি করে কাজ না করে বেতন পাবার জন্য।

তেমনি কিশোরগঞ্জ রেললাইন পরিদর্শক কর্মচারীদের ২০ দিনের কোনো কাজের রিপোর্ট উদ্ধতর্ন কর্মকর্তার কাছে না থাকলেও জনসাধারণের কাছে আছে রেললাইনে নাট বল্টু না থাকার রিপোর্ট।

যেকোনো সময় লাইন চূত হয়ে ঘটতে পারে মহামারি দূর্ঘটনা হাজার জীবনের ঝুকি নিয়ে পাড়ি দিচ্ছে কিশোরগঞ্জ ও ময়মনসিংহ গামী ট্রেন গুলো।

ট্রেন কে নিরাপদ ভেবে ঝাপিয়ে পড়েন টিকেট কাউন্টারে নিরাপদে পৌছানোর জন্য।

জনসাধারণের আবেদন যত দ্রুত রেল লাইনের সমস্যা গুলি যেন সমাধান করে দেন।

Sharing is caring!