আনলিমিটেড নিউজঃ যাত্রীবাহী বাসের চাপায় পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় ইজিবাইকের চালক ও দুই যাত্রীর মৃত্যু হয়েছেন। এ ঘটনায় আরো দুই যাত্রী আহত হয়েছেন।

 

 

 

উপজেলার দেবীপুর গ্রামের মুসল্লি বাড়ি নামক স্থানে মঠবাড়িয়া-চরখালী সড়কে আজ রোববার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

 

 

নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে দুজনের নাম-পরিচয় পাওয়া গেছে। তাঁরা হলেন—ইজিবাইকের চালক উপজেলার দেবীপুর গ্রামের বেলায়েত হোসেন (৩৫) ও একই গ্রামের সুপারি ব্যবসায়ী মুক্তিযোদ্ধা আবু জাফর হাওলাদার (৬৫)।

 

 

 

আহত ব্যক্তি, ফায়ার সার্ভিস ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, আজ ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে উপজেলার মুসল্লি বাড়ি নামক স্থানে একটি ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকে আবু জাফর হাওলাদার, তাঁর ছেলে গোলাম হোসেন হাওলাদার, ভাইয়ের ছেলে সাইমুন হাওলাদার ভান্ডারিয়া উপজেলার ইকড়ি বাজারে যাওয়ার জন্য ওঠেন।

 

 

 

ইজিবাইকে এক যাত্রী আগেই ছিলেন। আরও যাত্রী নেওয়ার জন্য ইজিবাইকটি সেখানে অপেক্ষা করছিল। এ সময় ঢাকা থেকে মঠবাড়িয়াগামী ঈগল পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাস বেপরোয়া গতিতে ইজিবাইকটিকে চাপা দেয়। এতে ইজিবাইকটি দুমড়েমুচড়ে যায়। ইজিবাইকের এক আরোহী ঘটনাস্থানেই নিহত হন।

 

 

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থানে যান। তাঁরা ইজিবাইকের চালক বেলায়েত হোসেন, আরোহী আবু জাফর হাওলাদার, গোলাম হোসেন হাওলাদার ও সাইমুন হাওলাদারকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক বেলায়েত হোসেন ও আবু জাফর হাওলাদারকে মৃত ঘোষণা করেন।

 

 

 

গুরুতর আহত গোলাম হোসেন হাওলাদার ও সাইমুন হাওলাদারকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

 

 

 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান বলেন, দুজনকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। গুরুতর আহত দুজনকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

 

 

 

মঠবাড়িয়া থানার কর্তব্যরত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) শহিদুল ইসলাম বলেন, বাসের চাপায় তিনজন নিহত ও দুজন আহত হয়েছেন। নিহত একজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি। ঘাতক বাসটি আটক করা হয়েছে।

 

 

বাসের চালক পলাতক রয়েছেন বলে জানিয়েছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

Sharing is caring!