আনলিমিটেড নিউজঃ নির্বাচনী হাওয়া বইছে বাফুফেতে। গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট সামনে রেখে দ্বিতীয় দিনের মতো চার বিভাগের কাউন্সিলরদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিল দেশের ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাফুফে।

 

 

১৬ নভেম্বর বসতে যাচ্ছে বাফুফের বর্ত্তমান কমিটির প্রথম বার্ষিক সাধারন সভা। আর আগমী ২০২০ সালের এপ্রিলে হবে বাফুফের বহুল আকাঙ্ক্ষিত নির্বাচন এই গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট গুলো সামনে রেখে দ্বিতীয় দিনের মত কাউন্সিলদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিল বাফুফে। দিয়েছিলো আশ্বাস অবশেষে মিলেছে প্রাপ্তি। বাফুফের দ্বিতীয় দিনের বৈঠকে ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ, এই চার বিভাগের সবকয়টি জেলাকে ৫ লক্ষ করে টাকা দেয়া হয়েছে।এই চার বিভাগের কাউন্সিলররা জানান,নির্বাচনের আগে সমস্যা সমাধানে আন্তরিক বাফুফে।

 

 

 

বিভাগীয় ফুটবল এসেসিয়েশনের সঙ্গে বৈঠক শেষে বাফুফের নির্বাহী কমিটির সদস্যদের নিয়ে জরুরি সভ ডেকেছেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন।এইদিকে ১৬ নভেম্বর এজিএম সফল করতে এই সভায় নেয়া হয়েছে বিভিন্ন উদ্যোগ।বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেন, বোর্ডের কাছ থেকে গঠনমূলক কয়েকটি প্রস্তাব এসেছে। একটা ফুটবল দলের খেলোয়াড়রা দেশের বাহিরে কি ধরনের সাপোর্ট পাবে সেটিও দেখছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন।এইদিকে বাংলাদেশ ফেডারেশনের নারী উইং মাহফুজা কিরণ বলেন, একতা মহল ফুটবলকে ধ্বংস করার জন্য বাহিরে অনেক উল্টাপাল্টা করছেন।আজকে প্রেসিডেন্ট যখন কথা বলছেন তখন ফুল ধারণা শেষ হয়েছে।

 

 

 

সরব ছিল বাফুফের নির্বাচনের আরেক পক্ষ বিডিডিএফএ মহাসচিব তরফদার রহুল আমিনের নেতৃত্বধীন কমিটি রাজধানীর একটি হোটেলে কাউন্সিলদের নিয়ে সভা করেন, সমালোচনা করেন বাফুফের অনুদানের ফাঁক ফোকড় নিয়ে এবং আসছে নির্বাচনে মাঠে থাকার আগাম বার্তা দেন।বিডিডিএফএ মহাসচিব তরফদার মোঃ রহুল আমিন বলেন, কেনও টাকা দিবে, কোথা থেকে টাকা আসবে। যে টাকা আসছে সেটা তো ফুটবল ফেডারেশনের টাকা না।তৃতীয় দিনের মত (চট্রগ্রাম, সিলেট,রাজশাহী ও রংপুর) এই চার বিভাগকে নিয়ে বৈঠকে বসবে বাফুফে।