আনলিমিটেড নিউজঃ বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া মেধাবীদের সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। দেশের সকল গুরুত্বপূর্ণ আন্দোলন সংগ্রামে ছাত্রলীগের অবদান অতুলনীয়। ছাত্রলীগের গুরুত্বপূর্ণ একটি ইউনিট ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগ। ব্যর্থতার ভারে নুয়ে পড়েছে এ ইউনিটটি। প্রধানমন্ত্রীর আর্শিবাদে এ কমিটি আসলেও তারা যোগ্যতার তেমন কোনো প্রমান দিতে পারেনি।

 

গত ২৬/১০/১৯ তারিখ নগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের অন্তর্গত রামপুরা থানা ছাত্রলীগ কমিটি অনুমোদন দেয় নগর কমিটি।

 

১২ সদস্যের কমিটি ঘোষণা দেয় নগর দক্ষিণ ছাত্রলীগ সভাপতি মেহেদী হাসান ও সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহমেদ।

 

 

এ কমিটি ঘোষণার আগেই দায়িত্বপ্রাপ্তদের বিষয়ে কেন্দ্রীয় দপ্তরে ব্যাপক অভিযোগ দেয় স্থানীয় আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের সাবেক বর্তমান অনেক নেতাই তাদের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট অভিযোগে প্রতিবেদন জমা দিয়েছিলেন।

 

নব-গঠিত কমিটির সভাপতিকে নিয়ে রীতিমত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিষয়টি ভাইরাল হয়েছে। জানা যায়, বর্তমান কমিটির সভাপতি হত্যা মামলার আসামী।

 

 

অন্যদিকে নতুন সাধারণ সম্পাদক এস এম মাহিন এর বিরুদ্ধে রয়েছে শিবিরের অভিযোগ, এ অভিযোগে ২০১৭ সালে রামপুরা থানা ছাত্রলীগ থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়। কিন্তু সময়ের পরিবর্তনে আজকে শিবিরের নেতাই রামপুরা থানা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদকের মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে।

 

নব কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রোহিতের বিরুদ্ধেও রয়েছে মামলা ও নারী গঠিত সম।

 

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন দেশে চলমান শুদ্ধি অভিযান চালাচ্ছেন ঠিক তখনি এমন বিতর্কিত কমিটি ঘোষণা করে ছাত্রলীগের ভাবমূর্তির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলে মনে করেন নিবেদিত ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।