আনলিমিটেড নিউজঃঃ জমজমাট আয়োজনের মধ্যদিয়ে আজকের বিজনেস বাংলাদেশ তৃতীয় বর্ষে পদার্পণ করলো। রোরবার (১৩ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬ টায় বিজনেস বাংলাদেশ কার্যালয়ে আগত অতিথিদের শুভেচ্ছা বিনিময়, কেক কাটা এবং আলোচনার মধ্যদিয়ে তৃতীয় বর্ষে পদার্পন করে পত্রিকাটি।

 

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুল মতিন খসরু এমপি, বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব মেজবাহ উদ্দিন, কৃষি মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব তাজুল ইসলাম, সাবেক সচিব ও আজকের বিজনেস বাংলাদেশ পত্রিকার উপদেষ্টামন্ডলীর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. শাহ আলম সিদ্দিকী, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতির (বাচসাস) ফালগুনী হামিদ, সভাপতি বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক দীপু সারোয়ার, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার (বাসস) সিনিয়র রিপোর্টার মো. সাজ্জাদ হোসেন, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সিনিয়র সাব এডিটর রণক ইকরাম। বিজনেস বাংলাদেশ পত্রিকার ৩য় বর্ষে পদার্পণ অনুষ্ঠানে জমকালো আয়োজনে বিশিষ্ট চলচ্চিত্র অভিনেত্রী অঞ্জনা সুলতানা, অভিনেতা সহিদুল আলম সাচ্চু, চলচ্চিত্র অভিনেত্রী রঞ্জিতা কনা, মিষ্টি মারিয়া, বিশিষ্ট পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান, চলচ্চিত্রকার ছটকু আহমেদ, বিশিষ্ট অভিনেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আজিজ, পরিচালক গাজী মাহবুব ও সময়ের আলোচিত মডেল-অভিনেত্রী সানাই মাহবুব এবং মডেল রোজ।

 

 

প্রধান অতিথি আব্দুল মতিন খসরু তার বক্তব্যে বলেন, মত প্রকাশ করা আমাদের মৌলিক অধিকার। শেখ হাসনার নেতৃত্বাধীন সরকার জনগণের মত প্রকাশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে। অবাধ তথ্য প্রবাহ নিশ্চিত করতে এবং গণমাধ্যমের ম্বাধীনতা নিশ্চিক করতে সরকার তথ্য অধিকার আইনসহ গণমাধ্যম বান্ধব বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তবে গণমাধ্যমে কর্মরতদের মনে রাখতে হবে সেই মত প্রকাশ যাতে হয় সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে। আজকের বিজনেস বাংলাদেশ সত্য ও বস্তুনিশ্ঠ সংবাদের বাহক হিসেবে কাজ করবে আশা প্রকাশ করে তিনি বলেন, পত্রিকাটির শুরু যেহেতু ভাল আমরা আশাবাদী এটি দেশের কল্যণে ভূমিকা রাখবে, যেভাবে দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক সংবাদসহ তৎকালীন গণমাধ্যম এদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌম প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা রেখেছে তেমনি আজকের বিজনেস বাংলাদেশ সমাজ পরিবর্তনে ভূমিকা রাখবে। তিনি পত্রিকার উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি ও সফলতা কামনা করেন।

 

 

অনুষ্ঠানে আগত বিভিন্ন অঙ্গনের ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা পত্রিকার সম্পাদকের হাতে ফুলের তোড়া তুলে দিয়ে শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি তাদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

Sharing is caring!