আনলিমিটেড নিউজ ডেস্কঃ তানভীর মোকাম্মেল নির্মাণ করছেন সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র ‘রূপসা নদীর বাঁকে’। সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রটির কাহিনি গড়ে উঠেছে একজন ত্যাগী বামপন্থী নেতাকে ঘিরে, যাকে ১৯৭১ সালে রাজাকাররা হত্যা করে।

 

 

পরিচালক জানান, ইতিমধ্যে খুলনার বৈঠাঘাটা ও ফুলতলা উপজেলার গ্রামাঞ্চলে, দৌলতপুর স্টেশনে এবং কুমিল্লায় ছবিটির শুটিং হয়েছে। শেষ হয়েছে পঁচানব্বই ভাগ শুটিং।

 

 

কেবল কারাগারের অভ্যন্তরের কিছু দৃশ্যের শুটিং বাকী। আগামী ২৬ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সেই দৃশ্যগুলো ধারণ করা হবে ঢাকার পুরনো কারাগারে। তেমনি করেই প্রস্তুতি নিয়েছেন বলে নিশ্চিত করলেন নির্মাতা।

 

তানভীর মোকাম্মেল বলেন, ‘ঢাকার পুরনো কারাগারটি এতদিন খালি না থাকায় শুটিং করা সম্ভব হচ্ছিল না। বর্তমানে কারাগার খালি রয়েছে। অনুমতিও পাওয়া গেছে। তাই এবার সবাইকে নিয়ে কারাগারের দৃশ্যগুলো শেষ করতে চাই। এ লটে খাপড়া ওয়ার্ডের জেলহত্যার অংশের শুটিং করা হবে।’

 

 

‘রূপসা নদীর বাঁকে’ ছবিটির চিত্রগ্রহণ করছেন মাহবুবুর রহমান খান, শিল্পনির্দেশক ও প্রধান সহকারি পরিচালক উত্তম গুহ। এর আবহসঙ্গীত করছেন সৈয়দ সাবাব আলী আরজু, পোশাক ও কাস্টিং ডিরেক্টরের দায়িত্ব পালন করছেন চিত্রলেখা গুহ এবং সহকারী পরিচালনায় রয়েছেন রানা মাসুদ ও সগীর মোস্তফা।

 

 

ছবিতে বিভিন্ন বয়সে বামপন্থী নেতাটির চরিত্রে অভিনয় করেছেন জাহিদ হাসান শোভন, খায়রুল আলম সবুজ ও তাওসিফ সাদমান তূর্য্য। অন্যান্য চরিত্রে রয়েছেন নাজিবা বাশার, রামেন্দু মজুমদার, আতাউর রহমান, চিত্রলেখা গুহ, কেরামত মওলা, ঝুনা চৌধুরী, আফজাল কবির, মাসুম বাশার, বৈশাখী ঘোষ, ইকবাল আহমেদ ও আরও অনেকেই।

 

 

পরিচালক নিশ্চিত করেছেন, সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ডিসেম্বরে বিজয় দিবস উপলক্ষে মুক্তি পাবে ‘রূপসা নদীর বাঁকে’।