সৌদি আরবে হাজিদের সেবায় কাজ করছে ১০ ভাষার অভিজ্ঞ স্বেচ্ছাসেবক

আনলিমিটেড নিউজ ডেস্ক: সৌদি আরবের পাসপোর্ট কর্তৃপক্ষ হজ পালনকারীদের সুবিধার্থে বহুভাষায় পারদর্শী স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ দিয়েছে। বর্তমানে প্রায় ১০টি ভাষায় পারদর্শী স্বেচ্ছাসেবকরা কাজ করছে জেদ্দা ও মদিনার বিমানবন্দরে। হজ পালনকারীরা বিমানবন্দর থেকে শুরু করে হজ পালনে যাবতীয় সমস্যা নিজ নিজ ভাষায় তুলে ধরলে পেয়ে যাবেন সমাধান। সৌদি আরবের পাসপোর্ট কর্তৃপক্ষ দিচ্ছে এ বিশেষ সেবা। খবর আরব নিউজ।

 

হজ চলাকালীন সময়ে সেবাদানের লক্ষ্যে সৌদি আরবের পাসপোর্ট অধিদফতর ৫০০ ব্যক্তিকে বিভিন্ন ভাষায় প্রশিক্ষণ দিয়েছে। সৌদি আরবে ভ্রমণকারীদের যোগাযোগ ব্যবস্থা ও যাবতীয় সুবিধা দিতেই তারা এ বিভিন্ন ভাষায় পারদর্শী কর্মীবাহিনী গড়ে তোলার কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

 

পাসপোর্ট অধিদফতেরর পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ডক্টর সালেহ বিন সাদ আল মেরবা বলেন, ‘১০টি ভাষার ওপর তাদের সুদক্ষ ৫০০ প্রশিক্ষণার্থী রয়েছে। এ কার্যক্রম এবারই প্রথম নয়, বরং গত ২ বছর আগে থেকেই এ কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। দিন দিন এ কর্মসূচি উন্নতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। ভবিষ্যতে এটি আরো উন্নত হবে।’

 

পাসপোর্ট অধিদফতেরর তত্ত্বাবধানে বর্তমানে জেদ্দার বাদশাহ আব্দুল আজিজ বিমানবন্দর ও মদিনার প্রিন্স মুহাম্মদ বিন আব্দুল আজিজ বিমানবন্দরে বিভিন্ন ভাষায় অভিজ্ঞরা হজযাত্রীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। বিমানবন্দরে তারা ইংলিশ, স্পেনিশ, ইন্দোনেশিয়ান, জাপানি, পার্সি, উর্দু, তার্কিসসহ আরো অনেক ভাষায় এ কার্যক্রম চালু রেখেছে।

 

সৌদি পাসপোর্ট কর্তৃপক্ষের লক্ষ্য প্রতি বছর হজ পালনকারীদের উন্নত সেবা প্রদানের লক্ষ্যে এ কার্যক্রম বৃদ্ধি করবে।

 

হজ ও ভ্রমণে আগত বিদেশিরা যাতে কোনো ধরনের হয়রানির শিকার না হয়, সে ব্যাপারে সর্বোচ্চ সেবা দেয়াই তাদের লক্ষ্য।

 

বিমানবন্দরসহ হজের যাবতীয় কাজে বিভিন্ন ভাষায় দক্ষ স্বেচ্ছাসেবক থাকলে হজ ও ভ্রমণকারীদের জন্য এ সফর হবে আরমদায়ক। সৌদি হজ ও পাসপোর্ট কর্তৃপক্ষের এ উদ্যোগ হজ ও ভ্রমণকারীদের জন্য অনেক উপকারে আসবে।