আনলিমিটেড নিউজ ডেস্ক:  মসজিদে নামাজ পড়ার সময় নারীকে পার্টিশন কিংবা পর্দার অন্য পাশে রেখে পুরুষের নামাজ পড়ার প্রথার বিরোধিতা করেছেন মক্কা শরিফের সাবেক ইমাম শেখ আদিল আল-কালবানী।

 

সৌদি ব্রডকাস্টিং ক্রপের সঙ্গে আলাপকালে আল-কালবানী বলেন, এই ধরনের পৃথকীকরণ রীতি মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)’র আমলে ছিল না।

কালবানীর দাবি, এই ব্যবস্থার সঙ্গে ইসলামের ঐতিহ্যের কোনো সম্পর্ক নেই।

 

‘দুঃখজনকভাবে মসজিদে, প্রার্থনার স্থানে আমরা এখন ভ্রান্ত ধারণায় আছি। তারা (নারীরা) পুরুষের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা থাকে। তাদের দেখতে পায় না, শুধু মাইকের শব্দ শুনতে পায়। যদি সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়, তাহলে তারা বুঝতে পারবে না কী হচ্ছে।’

 

হজরত মুহাম্মদ (সা.)’র আমলের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘সেই সময়ে পুরুষেরা সামনে নামাজ পড়ত। নারীরা থাকতো পেছনে। কোনো পার্টিশন থাকতো না। এমনকি পর্দাও থাকতো না। আর এখন আলাদা রুম করা হয়। কোথাও আসল মসজিদের থেকে দূরে রাখা হয়। আমার বিশ্বাস নারীদের প্রতি এটা এক ধরনের ঘৃণা।’