আনলিমিটেড নিউজ:: প্রধান শিক্ষকদের এক ধাপ নিচে জাতীয় বেতন স্কেলের ১১তম গ্রেডে বেতনের দাবিতে জাতীয় শহীদ মিনারে অামরণ অনশন শুরু করেছেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা।

শনিবার সকাল ১০টায় ‘বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক মহাজোটের’ উদ্যাগে এই অনশন কর্মসূচি শুরু হয়। এতে মহাজোটের অধীনে থাকা ১০টি সংগঠনের শিক্ষকরা অংশ নিয়েছেন। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হাজার হাজার শিক্ষক এসেছেন অনশন কর্মসূচিতে। শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে ধীরে ধীরে শিক্ষকদের সংখ্যা বাড়ছে।

জোটের নেতারা দাবি আদায়ে বক্তব্য দিচ্ছেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা অনশন চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন। তারা বলেন, এখন থেকে বিজয় না নিয়ে আমরা ফিরে যাব না।

অনশনে অবস্থানরত শিক্ষকরা বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে ক্রমান্বয়ে প্রাথমিক স্কুলের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের সঙ্গে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকদের বৈষম্য বাড়ানো হয়েছে। বর্তমানে প্রধান শিক্ষকদের বেতন স্কেল ১০ম গ্রেডে উন্নীত হলে আমরা চার ধাপ নিচে নেমে যাব। তাই প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের পরের গ্রেডে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকদের বেতন স্কেল নির্ধারণ করতে হবে। এই এক দফা দাবিতে আমরা আজ আমরণ অনশনে নামতে বাধ্য হয়েছি।

সহকারী শিক্ষক ফ্রন্টের সভাপতি খালেদা আক্তার বলেন, আমরা বৈষম্যের শিক্ষার। আমরা সংবাদ সম্মেলনে আমাদের দাবির কথা জানিয়েছি। দাবি পূরণের আশ্বাস দেয়া হয়েছিল, কিন্তু তা পূরণ করা হয়নি। দাবি পূরণ করা ছাড়া আমরা শহীদ মিনার ছেড়ে যাব না।

তিনি বলেন, আমাদের দাবি আদায়ে সরকারের বিভিন্ন মহলের সঙ্গে বৈঠক করেছি। দাবি পূরণে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, অধিদফতরসহ সরকারের বিভিন্ন মহল আশ্বস্ত করলেও তা আর বাস্তবায়িত হয়নি। এ কারণে আমরা বাধ্য হয়েছি আবারও আন্দোলনে নামতে।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, এটা সরকার-বিরোধী আন্দোলন নয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমরা মর্যাদা নিয়ে ক্লাসে ফিরে যেতে চাই। আপনার একটা আশ্বাসই পারে আমাদের সব সমস্যা সমাধান করতে।

বিভিন্ন জেলা থেকে আগত শিক্ষকরা সকাল থেকে ব্যানার হাতে মিছিল করে এ অনশনে যোগ দিচ্ছেন। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রায় কয়েক সহস্রাধিক শিক্ষক এ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেছেন।