আনলিমিটেড নিউজ ডেস্ক:: কেনিয়ার মাসাই মারার এক সাফারি পার্কের দুই সিংহের অদ্ভুত আচরণ প্রথমবারের মতো দেখেন এক ফটোগ্রাফার। দুটো পুরুষ হিংহের মধ্যে সমকামী আচরণ দেখে তাজ্জব বনে যান তিনি। ওদিকে, দেশটির এক সরকারি কর্মকর্তা দাবি করেছেন, সাফারি পার্কে ঘুরতে আসা সমকামী পর্যটকদের দেখেই দুই সিংহ সমকামীতা শিখেছে।

এজকেইল মুতুয়া নামের ওই কর্মকর্তা টুইট করেন, সম্ভবত সিংহ দুটো এই ন্যাশনাল পার্কে ঘুরতে আসা সমকামীদের যৌনতা লক্ষ্য করেছে। আমি অবশ্য নিশ্চিত হয়ে বলছি না। তবে তারা পর্যটকদের এমন আচরণ দেখেই তা রপ্ত করেছে। যদি তা নয় হয়, তবে বিষয়টি সত্যিই ভয়ংকর। অন্তত এই পশুরা সিনেমা দেখে না, কাজেই শেখার কোনো সুযোগ নেই।

তিনি আরো বলেন, আমরা জানি না এই কেনিয়া গেম পার্কস-এ কতজন সমকামী পর্যটক আসেন? তবে এই দেশে সমকামীদের ১৪ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে।

মুতুয়া মাসাই মারার এই দুই প্রেমিক সিংহকে স্বাভাবিক পথে ফিরিয়ে আনার পক্ষে কর্মসূচি গ্রহণের পক্ষে মত দিয়েছেন। তাদের পর্যবেক্ষণ করতে হবে এবং করণীয় নির্ধারণ করতে হবে বলে জানান।

এখানে আরো এমন হিংস রয়েছে কিনা তাও দেখতে হবে।

পশুদের মাঝে এমন ঘটনার কথা কেউ শুনেছেন কিনা তা আমি জানি না। এই দানবীয় আত্মা মানুষের মাঝে ভর করেছে। কিন্তু তা যে পশুদের ওপরও ভর করবে তা কে জানতো, যোগ করেন মুতুয়া। এ কারণে আপাতত এই দুই পাগল সিংহকে আলাদা করে পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে বলে মনে করেন তিনি। তাদের নিয়ে গবেষণা করতে হবে।

Sharing is caring!